সেরা রপ্তানিকারক ট্রফি পাচ্ছে ৬১ প্রতিষ্ঠান

Govt_logo21465884613

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- ২০১২-২০১৩ অর্থবছরে সর্বোচ্চ রপ্তানিকারক ৬১ প্রতিষ্ঠানকে ‘সেরা রপ্তানিকারক ট্রফি’ দিতে যাচ্ছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ২৬টি খাত থেকে এসব প্রতিষ্ঠানকে বাছাই করা হয়েছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের রপ্তানি-৩ অধিশাখার উপসচিব মো. শহীদুল আলম স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপন সূত্রে ঊর্ধ্বতন একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খুব শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিষ্ঠানগুলোকে সেরা রপ্তানিকারক ট্রফি দেওয়া হবে।

প্রজ্ঞাপনে সেরা ৬১ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রপ্তানিকারী প্রতিষ্ঠান হিসাবে তৈরি পোশাক খাতের প্রতিষ্ঠান জাবের অ্যান্ড জোবায়ের ফেব্রিক্স লিমিটেডকে নির্বাচিত করা হয়েছে। স্বর্ণপদক জয়ী ওই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান হলেন আবদুস ছালাম মো. রফিকুল ইসলাম নোমান।

জাবের অ্যান্ড জোবায়ের ফেব্রিক্স লিমিটেড ২০১১-১২ অর্থ বছরেরও সেরা রপ্তানিকারক নির্বাচিত হয়। ওই অর্থ-বছরে ২৪টি বিভাগে ৫২টি প্রতিষ্ঠানকে সেরা নির্বাচিত করা হয়।

২০১২-১৩ অর্থ বছরের সেরা প্রতিষ্ঠানগুলোর তালিকায় স্কয়ার গ্রুপ, প্রাণ গ্রুপ, হা-মীম গ্রুপ, অ্যাপেক্স গ্রুপ, এনভয় গ্রুপ, আকিজ গ্রুপ ও বেঙ্গল গ্রুপের একাধিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

৯ জুন জারি করা প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী, তৈরি পোশাক (ওভেন ও নিটওয়্যার), সব ধরনের সুতা, টেক্সটাইল ফেব্রিক্স, হোম স্পেশালাইজড ও টেক্সটাইল, হিমায়িত খাদ্য, কাঁচা পাট, পাটজাত দ্রব্য, চামড়া, চামড়াজাত পণ্য, ফুটওয়্যার, কৃষিজাত পণ্য (তামাক বাদে), কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য, ফুল ও ফলিয়েজ, হস্তশিল্পজাত পণ্য, প্লাস্টিক পণ্য, সিরামিক সামগ্রী, অন্যান্য শিল্পপণ্য, ওষুধ, ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রোনিক পণ্য, কম্পিউটার সফটওয়্যার, প্যাকেজিং ও অ্যাকসেসরিজ পণ্য এবং রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলভুক্ত (ইপিজেড) শতভাগ দেশি মালিকানার কারখানার দুটি শ্রেণিসহ মোট ২৬টি শ্রেণিতে সেরা নির্বাচিত করা হয়েছে।

২৬ খাত অনুযায়ী নির্বাচিত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো : তৈরি পোশাক খাতের ওভেন উপখাত থেকে সর্বোচ্চ রপ্তানিকারক হিসেবে স্বর্ণপদক ও ব্রোঞ্জ পদক পেতে যাচ্ছে হা-মীম গ্রুপের প্রতিষ্ঠান রিফাত গার্মেন্টস লিমিটেড ও এ্যাপারেল গ্যালারি লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন দেশের ব্যবসায়ী ও শিল্পপতিদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের প্রাক্তন সভাপতি এ কে আজাদ। এ ছাড়া ওভেন রপ্তানিতে রৌপ্য পদক পাবেন অনন্ত অ্যাপারেলসের এমডি শরীফ জহীর।

তৈরি পোশাকের নিটওয়্যার উপখাতে শীর্ষ রপ্তানিকারক হিসেবে স্বর্ণপদকের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে জি, এম, এস কম্পোজিট নিটিং ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডকে। প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মো. গোলাম মোস্তফা। এ ছাড়া রৌপ্য পাবেন স্কয়ার ফ্যাশনস লিমিটেডের তপন চৌধুরী ও ব্রোঞ্জ পাবেন ইন্টারষ্টফ এ্যাপারেলস লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ শাহরিয়ার আলম।

সব ধরনের সুতা রপ্তানিকারকদের মধ্য থেকে সর্বোচ্চ রপ্তানিকারক হিসেবে স্বর্ণপদক পাবেন কামাল ইয়ার্ন লিমিটেডের এমডি কামাল উদ্দিন আহমেদ, রৌপ্য পদক পাবেন বাদশা টেক্সটাইল লিমিটেডের এমডি মো. বাদশা মিয়া ও ব্রোঞ্জ পদক পাবেন মোশারফ কম্পোজিট টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের এমডি মো. মোশাররফ হোসেন।

টেক্সটাইল ফেব্রিক্স খাতে সেরা রপ্তানিকারক হিসেবে স্বর্ণপদক পাবেন সাদ সান টেক্সটাইল মিলস লিমিটেডের এমডি জি এম সালাহউদ্দিন, রৌপ্য পদক পাবেন এনভয় টেক্সটাইলের চেয়ারম্যান কুতুবউদ্দিন আহমেদ ও ব্রোঞ্জ পদক পাবেন তালহা ফেবিক্স লিমিটেডের এমডি আবদুল্লাহ মোহাম্মদ জুবায়ের।

শীর্ষ রপ্তানিকারক পদক ছাড়াও হোম ও স্পেশালাইজড টেক্সটাইল খাতে সেরা রপ্তানিকারক হিসেবেও স্বর্ণপদক নির্বাচিত হয়েছেন জাবের অ্যান্ড জোবায়ের ফেব্রিক্স। এই খাতে রৌপ্য পদক পাচ্ছেন ইউনিলায়েন্স টেক্সটাইল লিমিটেডের এমডি শাহ শাহেদুল আলম।

টেরিটাওয়েল খাতে স্বর্ণ পদকের জন্য নোমান টেরিটাওয়েল লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ নুরুল ইসলামকে নির্বাচিত করা হয়েছে।

হিমায়িত খাদ্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন অ্যাপেক্স ফুডস লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও এমডি জাফর আহম্মেদ, সি মার্ক (বিডি) লিমিটেডের এমডি ইকবাল আহমেদ ওবিই রৌপ্য পদক এবং জালালাবাদ ফ্রোজেন ফুডস লিমিটেডের এমডি আব্দুল জব্বার মোল্লা ব্রোঞ্জ পদক পাচ্ছেন।

কাঁচা পাট রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন পপুলার জুট এক্সচেঞ্জের এমডি হাসান আহমেদ, রৌপ্য পদক পাবেন রেজা জুট ট্রেডিংয়ের এমডি মো. সেলিম রেজা ও ব্রোঞ্জ পদক পাবেন ‍উত্তরা জুট ট্রেডার্সের মালিক উত্তরা জুটে ট্রেডার্স।

পাটজাত দ্রব্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন আকিজ জুট মিলসের চেয়ারম্যান শেখ নাসির উদ্দিন, রৌপ্য পাবেন জনতা জুট মিলসের এমডি নাজমুল হক ও ব্রোঞ্জ পাবেন সাদাত জুট ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের এমডি মাহমুদুল হক।

ক্রাস্ট ও ফিনিশড চামড়া রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন অ্যাপেক্স ট্যানারির এমডি এ কে এম রহমতউল্লাহ, রৌপ্য পাবেন এসএএফ ইন্ডাস্ট্রিজের এমডি শেখ মোমিন উদ্দিন ও ব্রোঞ্জ পদক পাচ্ছেন বেঙ্গল লেদার কমপ্লেক্স লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ টিপু সুলতান।

চামড়াজাত দ্রব্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন পিকার্ড বাংলাদেশের এমডি মোহাম্মদ সায়ফুল ইসলাম, রৌপ্য পাবেন আরএমএম লেদার ইন্ডাস্ট্রির এমডি অনিরুদ্ধ কুমার রায় ও ব্রোঞ্জ পদন পাচ্ছেন এবিসি ফুটওয়্যার ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও এমডি জয়নাল আবেদীন মজুমদার।

ফুটওয়্যার রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন মেসার্স এফবি ফুটওয়্যারের এমডি অনিরুদ্ধ কুমার রায়, লালমাই ফুটওয়্যার লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ আমিন উর রশীদ রৌপ্য পদক ও মেসার্স ফুটবেড ফুটওয়্যার লিমিটেডের এমডি অনিরুদ্ধ কুমার রায় ব্রোঞ্জ পদকের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।

কৃষিজাত পণ্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন আল-আজমী ট্রেড ইন্টারন্যাশনালের মালিক মো. তাফহীম আল-আজমী, রৌপ্য পাচ্ছেন মনসুর জেনারেল ট্রেডিং কোম্পানি লিমিটেডের মালিক মোহাম্মদ মনসুর ও এলিন ফুডস ট্রেডের মালিক ওমর ফারুককে ব্রোঞ্জ পদকের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।

অ্যাগ্রো প্রসেসিং পণ্য রপ্তানিতে স্বর্ণ, রৌপ্য ও ব্রোঞ্জ পদকের জন্য চূড়ান্ত হওয়া তিনটি প্রতিষ্ঠানই প্রাণ গ্রুপের। এর মধ্যে প্রাণ ডেইরি লিমিটেড স্বর্ণপদক, প্রাণ অ্যাগ্রো রৌপ্য পদক এবং প্রাণ ফুডস ব্রোঞ্জ পদকের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।

ফুল ও ফলিয়েজ রপ্তানিতে স্বর্ণ ও রৌপ্য পদক পাচ্ছেন মেসার্স রাজধানী এন্টারপ্রাইজ, আর মেসার্স ক্যাপিটাল এন্টারপ্রাইজ। দুটি প্রতিষ্ঠানের মালিকই গোবিন্দ চন্দ্র সাহা।

হস্তশিল্প রপ্তানিতে স্বর্ণপদক কারুপণ্য রংপুরের এমডি সফিকুল আলম সেলিম, রৌপ্য পদক কোর দ্য জুট ওয়ার্কসের পরিচালক বার্থা গীতি বাড়ৈ ও ব্রোঞ্জ পদক পাচ্ছেন মেসার্স হেলাল অ্যান্ড ব্রাদার্সের মালিক মো. হেলাল মিয়া।

প্লাস্টিক পণ্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন বেঙ্গল প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ইউনিট-৩ এর এমডি মোরশেদ আলম ও বেঙ্গল প্লাস্টিক ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের মালিক জসিম উদ্দীন। রৌপ্য পদক পাচ্ছেন আরএফএল প্লাষ্টিক লিমিটেডের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল মাহতাব উদ্দিন আহমেদ (অব.)।

সিরামিক সামগ্রী রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন ফার সিরামিকসের এমডি ইফতেখার উদ্দিন ফরহাদ।

ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রোনিক পণ্য রপ্তানীতে স্বর্ণ পদক পাচ্ছেন বি আর বি কেবল ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেডের এমডি মো. পারভেজ রহমান।

অন্যান্য শিল্পজাত পণ্য রপ্তানিতে স্বর্ণ পদ পাচ্ছেন মেসার্স মেরিন সেফ্টি সিষ্টেমের এমডি গাজী মোকাররম আলী চৌধুরী।

ওষুধ রপ্তানিকারক হিসেবে স্বর্ণ পদকের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের তপন চৌধুরী।

কম্পিউটার সফটওয়্যার রপ্তানিতে গ্রাফিট পিপল লিমিটেডের এমডি ইমতিয়াজ এলাহী পাবেন স্বর্ণপদক এবং সার্ভিস ইঞ্জিনের চেয়ারম্যান এ এস এম মহিউদ্দিন মোনেম রৌপ্য পদক।

ইপিজেডভুক্ত ১০০ ভাগ বাংলাদেশি মালিকানাধীন (সি ক্যাটাগরি) তৈরি পোশাক শিল্প (ওভেন ও নিট) খাত থেকে ইউনির্ভাসেল জিন্স লিমিটেড স্বর্ণপদক ও প্যাসিফিক জিন্স লিমিটেড রৌপ্য পদক পাবে। এ দুটি প্রতিষ্ঠানের এমডি মো. নাসির উদ্দিন।

ইপিজেডভুক্ত ১০০ ভাগ বাংলাদেশি মালিকানাধীন (সি ক্যাটাগরি) অন্যান্য পণ্য ও সেবা রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন শাশা ডেনিমস লিমিটেডের এমডি আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

এ ছাড়া প্যাকেজিং ও অ্যাকসেসরিজ পণ্য রপ্তানিতে স্বর্ণপদক পাবেন মন ট্রিমস লিমিটেডের চেয়ারম্যান হাজি আবদুল মজিদ মণ্ডল, রৌপ্য পদক পাচ্ছেন অ্যান্ড জুবায়ের এক্সসরিজ লিমিটেডের এমডি আব্দুছ ছামাদ মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম (নোমান) ও মেসার্স ইউনিগ্লোরি পেপার অ্যান্ড প্যাকেজিং লিমিটেডের এমডি মোহাম্মদ মুশতাক আহমেদ তানভীর ব্রোঞ্জ পদন পাচ্ছেন।

অন্যান্য সেবাখাত ক্যাটাগরিতে স্বর্ণপদক পাচ্ছেন মীর টেলিকম লিমিটেডের এমডি মীর নাসির হোসেন।