আগামীকাল থেকে ব্যাংকে মিলবে ঈদ সেলামির নতুন নোট

ব্ব

সুখবর প্রতিদিন ডেস্ক: ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে অন্যান্য উপহারের পাশাপাশি বড়রা ছোটদের হাতে সেলামি হিসেবে তুলে দেন নতুন টাকা। নতুন নোটের ঘ্রাণে শিশুদের ঈদ আনন্দ আরো কয়েকগুণ বেড়ে যায়। আর ঈদকে সামনে রেখে প্রতিবারই গ্রাহকদের নতুন নোট বিনিময় করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৩টি নির্দিষ্ট কাউন্টার ও সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন ব্যাংকের ২০টি শাখা থেকে নতুন নোট নিতে পারবে রাজধানীর গ্রাহকরা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র শুভংকর সাহা বলেন, ‘আগামী ১৬ তারিখ থেকে নতুন টাকা বিনিময়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিবারের মতই এবারো আমরা গ্রাহকদের সর্বোচ্চ চাহিদা পূরণ করবো।’

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, আগামী বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের মতিঝিল অফিস থেকে নির্ধারিত ৩টি কাউন্টারের মাধ্যমে নতুন টাকা দেয়া হবে। প্রতি গ্রাহক সর্বোচ্চ ৫০, ২০, ১০, ৫ ও ২ টাকার একটি করে বান্ডেল নিতে পারবে। প্রতি বান্ডেলে ১শ’ করে নোট থাকে। সে হিসেবে ৮ হাজার ৭শ’ টাকার বিভিন্ন ধরনের নতুন নোট নিতে পারবে গ্রাহকরা। তবে ধাতব মুদ্রার ক্ষেত্রে কোনো বাধাধরা নিয়ম নেই।

নতুন টাকা নেয়ার আগে বায়োমেট্রিক মেশিন ব্যবহার করা হবে। এতে ফিঙ্গার প্রিন্ট দিয়ে টাকা নিতে হবে। ফলে একজন গ্রাহক একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দ্বিতীয়বার টাকা নিতে পারবে না।

নির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার থেকেই ঢাকা শহরে বাণিজ্যিক ব্যাংকের আরও ২০টি শাখার মাধ্যমে নতুন টাকার বিনিময় করা হবে। শাখাগুলো হলো- ন্যাশনাল ব্যাংকের যাত্রাবাড়ী শাখা, জনতার আব্দুল গণি রোড করপোরেট শাখা, অগ্রণীর এলিফ্যান্ট রোড শাখা, দি সিটি ব্যাংকের মিরপুর শাখা, সাউথইস্ট ব্যাংকের কারওয়ানবাজার শাখা, সোস্যাল ইসলামী ব্যাংকের বসুন্ধরা/পান্থপথ শাখা, উত্তরা ব্যাংকের চকবাজার শাখা, সোনালী ব্যাংকের রমনা করপোরেট শাখা, ঢাকা ব্যাংকের উত্তরা শাখা, আইএফআইসি ব্যাংকের গুলশান শাখা, রূপালী ব্যাংকের মহাখালী শাখা, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের মোহাম্মদপুর শাখা, জনতা ব্যাংকের নিউ মার্কেট শাখা, পূবালী ব্যাংকের সদরঘাট শাখা, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংকের মালিবাগ শাখা, ওয়ান ব্যাংকের বাসাবো শাখা, ইসলামী ব্যাংকের শ্যামলী শাখা, ডাচ্-বাংলার দক্ষিণখান শাখা, মার্কেন্টাইলের বনানী ও ব্যাংক এশিয়ার ধানমণ্ডি শাখা।

নতুন টাকা বিনিময়কালে বাংলাদেশ ব্যাংকের চট্টগ্রাম অফিস ও অন্যান্য অফিস দুটি করে কাউন্টার খোলা রাখবে। চট্টগ্রাম, খুলনা ও সিলেটে অবস্থিত বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ৩টি শাখা এবং বগুড়া, বরিশাল, রংপুর ও রাজশাহীতে অবস্থিত বিভিন্ন বাণিজ্যিক ব্যাংকের ২টি শাখার মাধ্যমে নতুন নোটের বিনিময় করা হবে। নতুন টাকার বিনিময় চলবে ০৫ জুলাই পর্যন্ত।