ক্রিকেট থেকে দীর্ঘদিন নির্বাসনে থাকা আশরাফুলের হৃদয় ছোঁয়া কিছু কথা!

Ashrafulস্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – আমি অনেক বার স্যরি বলেছি আমার ভুল স্বীকার করে আবারও ক্ষমা চাচ্ছি। আমার ৩১ বছরের জীবনে আমি খারাপ কাজ করেছি খুবই কম। যে ১/২টা খারাপ কাজ করেছি, সেগুলোও আমি আর পরবর্তীতে করতে চাই না।

ম্যাচ ফিক্সিংয়ের দায়ে সব ধরণনের ক্রিকেট থেকে দীর্ঘদিন নির্বাসনে থাকা বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবিক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল বিবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন। আগামী অাগস্ট মাসে আবার ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরতে যাচ্ছেন তিনি।

মোহাম্মদ আশরাফুল বলেন, অবশ্যই আমি বল মোস্তাফিজ অসাধারণ একটা বোলার। আল্লাহর রহমতে সুস্থ থেকে খেলতে পারলে মোস্তাফিজ কিংবদন্তিদের একজন হবে। এই মুহুর্তে মোস্তাফিজ আমাদের বিরাট বড় একটা সম্পদ। সে অসাধারণ খেলছে আসার পর থেকেই। সত্যিই খুবই কঠিন ও স্লোয়ার বলগুলো খেলা। আমি যখন খেলা দেখি ভাবি পরবর্তীতে আমি যখন খেলব তখন কীভাবে ওকে মোকাবেলা করব?

তিনি বলেন, আমি যে অবস্থায় ছিলাম দোয়া করি যেন এই অবস্থায় কোনো ক্রিকেটারই না আসে। আমি অনেক বার স্যরি বলেছি আমার ভুল স্বীকার করে আবারও ক্ষমা চাচ্ছি। দোয়া করবেন এবার যেন শুধু ভালো ক্রিকেটার হিসেবে নয়, একজন ভালো মানুষ হিসেবেও ফিরে আসতে পারি।

তিনি আরও বলেন, আমি কখনোই ধারাবাহিকভাবে ভালো খেলি নি। তারপরেও সবাই আমাকে ভালোবেসেছে। এই বয়সে আমি যদি আবার জাতীয় দলে সুযোগ পায় তবে এটাই হবে ক্রিকেট থেকে আমার সেরা অর্জন।

ক্রিকেটে বর্তমানে বাংলাদেশের সাফল্যে ব্যাপারে আশরাফুল বলেন, ক্রিকেটে বাংলাদেশের সাফল্যের পেছনে মাশরাফি ও হাথুরুসিংহের বিরাট অবদান রয়েছে। হাথুরুসিংহে ব্যাটসম্যানদের জন্য সত্যিই অসাধারণ। দক্ষতা-সম্পন্ন ব্যাটসম্যানদেরকে তিনি ইচ্ছামতো খেলার সুযোগ দিয়েছেন।

ভক্তদের পাশাপাশি জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাও আমার জন্য অপেক্ষা করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমি জাতীয় লিগ দিয়েই শুরু করব। সবাই হয়ত বা অপেক্ষা করছে আমার জন্য যে আমি ফিরব, আমি কেমন করব। জাতীয় দলের প্রত্যেকটি ক্রিকেটারই অপেক্ষা করছে কবে আমি ফিরব। আমি অনেক জায়গায় শুনেছি তাদের সকলের বিশ্বাস আশরাফুল ভাই আবারও খেলবে বাংলাদেশের হয়ে। এইটা শুনলে আমার ভেতর আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায়।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ বা বিপিএলে ঢাকা গ্লাডিয়েটার্স নামক দলের অধিনায়ক থাকাকালে ২০১৩ সালে ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগ স্বীকার করে নিয়েছিলেন আশরাফুল। সেই থেকে তার ক্রিকেট খেলার উপর নিষেধাজ্ঞা দেয় ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসির দূর্নীতি বিরোধী সংস্থা আকসু। এরই মধ্যে নিষেধাজ্ঞার আড়াই বছরের মতো সময় পেরিয়ে গেছে।

কিন্তু এতদিন কিন্তু নিজেকে ক্রিকেট থেকে দূরে সরিয়ে নেননি নিজেকে। প্রতিদিন অনুশীলন করেছেন। নিজের ক্রিকেটীয় কসরৎ ধরে রাখতে এবং আরো উন্নত করতে চালিয়ে গেছেন টানা অনুশীলন। বিয়েও করেছেন এরই মধ্যে। সংসার এবং ক্রিকেট অনুশীলন নিয়েই দিন কেটে যায় আশরাফুলের।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter
  • You May Also Like:
  • Top Views