কুলিয়ারচরে সন্ত্রাসীদের তান্ডবে ভিটেছাড়া সোলাইমান কবিরাজের পরিবার

Screenshot_2016-06-16-11-09-13 copy

আ. ম. আরীফুল হক, কিশোরগঞ্জ (হাওর অঞ্চল) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচচর উপজেলার লক্ষ্মীপুর মধ্যপাড়া গ্রামের সোলাইমান নামে এক কবিরাজ দীর্ঘ ৬ মাস সন্ত্রাসীদের হুমকিতে ভিটে ছাড়া। জানাযায়, গোলাম হোসেন, নূর মিয়া, আক্কাছ মিয়া, আবু তাহের, সোহেল মৌলভী, বাচ্চু, পাভেল ও তার সাঙ্গ-পাঙ্গরা রাতের আঁধারে কবিরাজ সোলাইমানের বসত ভিটা দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র দ্বারা ভেঙে-চূড়ে দেন। অবস্থার অবনতি টের পেয়ে সোলাইমান ও তার পরিবার বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে বের হয়ে প্রাণ বাঁচায়। দীর্ঘ ৬ মাস অতিক্রান্ত হওয়ার পরও থানায় কোন অভিযোগ করতে পারেনি কবিরাজ সোলাইমান। সোলাইমান বলে, সন্ত্রসীরা আমার কাছে প্রতি মাসে ১০,০০০/- টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদার টাকা দিতে না পারায় ওরা আমাকে ভিটে ছাড়া করে রেখেছে দীর্ঘ ৬ মাস। প্রাণের ভয়ে আমি বাড়িতে আসতে সাহস পাচ্ছি না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক স্থানীয় লোকজন বলেন, সোলাইমান কবিরাজি চিকিৎসা করত। যে যত টাকাই দিত তাতেই সন্তুষ্ট থাকত সোলাইমান। যার ফলে চিকিৎসা করে তেমন একটা টাকা উপার্জন করতে পারত না সে। চাঁদার টাকা দিতে না পারায় সোলাইমানকে ভিটে ছাড়া করে রেখেছে সন্ত্রাসীরা।

কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চৌধুরী মিজানুজ্জামান বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত না। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।