গরুর সঙ্গে বেঁধে ৩ যুবককে গ্রাম ঘুরালো ইউপি সদস্য

ukhiyainner

কক্সবাজার প্রতিনিধি- গরুচুরির অভিযোগ এনে শত-শত মানুষের উপস্থিতিতে ৩ যুবককে গরুর গলার রশির সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে।

বুধবার দুপুরের দিকে কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার উপকূলীয় ইউনিয়ন জালিয়াপালং লম্বরী নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। ইউনিয়নটির ২নং ওয়ার্ডের নব-নির্বাচিত ইউপি সদস্য শামসুল আলম এ ঘটনার নেতৃত্ব দেন। নির্যাতনের শিকার ৩ জনই সিএনজিঅটোরিকশা চালক।

জানা যায়, ওই ৩ যুবককে পালংখালী ইউনিয়নের বালুখালীর এক ব্যক্তির গরু চুরির অভিযোগে ধরে আনা হয়। ইউপি সদস্য শামসুল আলমের নেতৃত্বে একদল লোক গরুর গলার সাথে ৩ যুবককে এক রশিতে বেঁধে সারা গ্রাম ঘুরায়। এরপর চাষের জমির মধ্যে হাঁটু পানিতে নামিয়ে শাস্তি দেয়া হয়।

গরু চুরির অভিযোগে, বুধবার সকালে জালিয়াপালং লম্বরী পাড়া এলাকার বাসিন্দা সামশুল আলমের ছেলে ইমরান (২৩), একই এলাকার শফিকুর রহমানের ছেলে মোঃ কামাল (২৫) ও মোঃ ছিদ্দিকের ছেলে মাহামুদুল হককে (২৪) আটক করে এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়ে ইউপি সদস্য শামসুল মেম্বারের কাছে নিয়ে যায়। কিন্তু তিনি ওই তিনজনকে পুলিশে না দিয়ে কয়েকজনকে দিয়ে আবার পিটুনি দেয়। একপর্যায়ে গরুর গলার রশির সঙ্গে বেঁধে ওই ৩ জনকে সারা গ্রাম ঘোরানো হয়।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য শামসুল আলমের সাথে কথা হলে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, তিনি উল্টো চোরদের জনতার রোষানল থেকে রক্ষা করেছেন।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে সন্ধ্যায় উখিয়া থানা পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।