ঝিনাইদহে কাউন্সিলরের মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড বানানোর অভিযোগ !

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহের মহেশপুরের পৌর কাউন্সিলর বাবুল আক্তার তার মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড করিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে কাউন্সিলর বাবুল আক্তার জানান, আমার মায়ের নাম নারী কাউন্সিলর দিয়েছেন। আমি দেইনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশাফুর রহমান জানান, মহেশপুরে পৌর কাউন্সিলর বাবুল আক্তার তার মায়ের নামে বয়স্ক ভাতার কার্ড ইস্যু করেছেন। অভিযোগ পেয়ে আমি নিজেই প্রতিটি ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে কার্ড পৌঁছে দিচ্ছেন।

সমাজসেবা অফিসের তথ্যমতে জানা গেছে, সর্বনিম্ন ৬৫ বছর বয়সের পুরুষ ও ৬২ বছর বয়সের নারী যারা অসচ্ছল, জমিজমা নেই, বিধবা, সন্তানহীন তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিপত্রে কার্ড দেয়ার কথা বলা রয়েছে। অসচ্ছল বয়স্ক, বিধবা ও পঙ্গু ব্যক্তিদের সরকার প্রতিমাসে ভাতা দিয়ে থাকেন ব্যাংকের মাধ্যমে।

সেখানে এলাকার জনপ্রতিনিধি ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা যাচাই-বাছাই করে অসচ্ছল বয়স্ক ব্যক্তিদের নামের তালিকা উপজেলা সমাজসেবা দফতরে জমা দেন। সেই তালিকা অনুযায়ী সরকার তাদের প্রতি মাসে ৪০০ টাকা করে ভাতা প্রদান করে।

পৌরসভার মেয়র আব্দুর রশিদ খান দাবি করেন, আমার জানা মতে প্রকৃত ব্যক্তিদের বয়স্ক ও বিধবা ভাতার কার্ড দেয়া হয়েছে।