কোপার আসরে নিজেদের স্মরণীয় করেই তুললো যুক্তরাষ্ট্র

kopa-usaস্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – ঘরের মাঠে বসেছে শতবর্ষী কোপা আমেরিকার আসর। যুক্তরাষ্ট্রও আদায় করে নিচ্ছে সেই সুবিধা! চলমান আসরে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে স্বাগতিকরা। শুক্রবার সকালে (বাংলাদেশ সময়) ইকুয়েডরকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে কোপার সেমিফাইনালের খেলা নিশ্চিত করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

আজ সকালে ওয়াশিংটনের সেঞ্চুরিলিংক স্টেডিয়ামে ইকুয়েডরকের আতিথ্য দেয় যুক্তরাষ্ট্র। চেনা মাঠ ও চেনা সমর্থকদের সামনে শুরু থেকেই আক্রমনাত্মক খেলতে থাকে স্বাগতিকরা। ফলে ম্যাচের ২২ মিনিটে জার্মেইন জোন্সের পাস থেকে ঘরের মাঠের দর্শকদের উচ্ছ্বাসে মাতান ক্লিন্ট ডেম্পসি। প্রথমার্ধেই গোলের শোধ দিতে কিছুটা আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে ইকুয়েডর। কিন্তু বিশ্রামে যাওয়ার আগ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হওয়ায় ১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় যুক্তরাষ্ট্র।

বিশ্রাম শেষে মাঠে নেমে রক্ষণ আগলে রেখে খেলতে শুরু করে যুক্তরাষ্ট্র। এ সময় প্রতিপক্ষের জালে কয়েকবার বল পাঠানোর চেষ্টা করে দলটি। ৫২ মিনিটের মাথায় দু’দলই দশজনের দলে পরিণত হয়। যুক্তরাষ্ট্রের আলেজান্দ্রো বেদোইয়াকে কড়া ট্যাকল দিতে গিয়ে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন অ্যান্তোনি ভ্যালেন্সিয়া। ম্যাচেও ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা। ঠিক ওই সময়েই মাঠে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করায় সরাসরি লাল কার্ডের আওতায় পড়েন স্বাগতিক দলের তারকা মিডফিল্ডার জারমেইন জোনস।
ম্যাচের ৬৫ মিনিটে গায়াসি জারডেস গোল করে যুক্তরাষ্ট্রকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন। এই ব্যবধানে পিছিয়ে পড়ার পর কিছুটা বেপরোয়া হয়ে পড়ে ইকুয়েডর। ম্যাচের ৭৪ মিনিটে মাইকেল অ্যারোইয়োর লক্ষ্যভেদে ২-১ গোলে ব্যবধান কমায় সফরকারী ইকুয়েডর।

ব্যবধান কমানোর পর কিছুটা স্বস্তি ফিরে আসে ইকুয়েডর শিবিরে। আরও এক গোলে ব্যবধান সমান করার জন্য একের পর এক আক্রমন শাণাতে থাকে দলটি। কিন্তু শেষপর্যন্ত কাজের কাজ কিছুই করতে পারেনি তারা। এই সময় গোলের বেশকয়েকটি সুযোগ পেয় তা নষ্ট করছে যুক্তরাষ্ট্র। ম্যচের শেষ সময় পর্যন্ত আর গোল না হওয়ায় ২-১ ব্যবধানের জয়ে সেমির টিকেট পেয়ে যায় জার্গেন ক্লিন্সম্যানের শিষ্যরা।

আগামী ২২ জুন বুধবার প্রথম সেমিফাইনালে মাঠে নামে যুক্তরাষ্ট্রে। ওই ম্যাচে তারা প্রতিপক্ষ হিসেবে পাবে আর্জেন্টিনা ও ভেনেজুয়েলার মধ্যকার জয়ী দলকে।