দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে পুলিশ-ডাকাত সংঘর্ষে এক ডাকাত গুলিবিদ্ধ: ৩ পুলিশ আহত

শাহ্ আলম শাহী,স্টাফ রিপোর্টার,দিনাজপুর থেকেঃ দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে শুক্রবার ভোররাতে ডাকাত দলের সাথে পুলিশের সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় পুলিশের হাতে আটক ডাকাত সাইফুল মোল্লা গুলিবিদ্ধ হয়েছে। একই ঘটনায় আহত হয়েছে ২ পুলিশ কর্মকর্তাসহ এক পুলিশ সদস্য।

ঘটনাটি ঘটেছে শুত্রবার ভোর ৩টায় উপজেলার বেতদিঘী ইউনিয়নের জাঙ্গালের ব্রীজ নামক স্থানে । আহত ডাকাত সর্দার সাইফুল মোল্লা উপজেলার আদমপুর গ্রামের মৃত সইমুদ্দিন মোল্লার ছেলে। আহত পুলিশরা হলেন,এসই আই আক্কেল আলী , এ এস আই শামীম মন্ডল ও পুলিশ সদস্য মিজানুর রহমান। গুলিবিদ্ধ সাইফুল মোল্লা বর্তমানে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এছাড়া পুলিশ সদস্যরা ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ফুলবাড়ী থানার ওসি মকছেদ আলী জানান,১১জুন দিবাগত রাত ৩টায় ফুলবাড়ী উপজেলার রাজারামপুর ফকিরপাড়া এলাকায় বসবাসরত প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রীর ছোট খাজা মইনউদ্দিন এর বাড়ীতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার মোস্ট ওয়ারেন্টেড আসামী ও একাধিক ডাকাতি মামলার আসামী সাইফুল মোল্লাকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা পল্লবী থানার কালসি নামক স্থান থেকে গত বৃহস্পতিবার আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। থানায় নিয়ে আসার পর তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক বৃহস্পতিবার দিবাগত আড়াইটায় তাকে সাথে নিয়ে আমি সহ ওসি তদন্ত আব্দুর রহমান এস আই আক্কেল আলী, এই আই এশরাফুল ইসলাম, এস আই জাহাঙ্গীর আলম, এ এস আই শামীম মন্ডল ও পুলিশ সদস্য মিজানুর রহমান ও শাহাদত আলীসহ ৮ সদস্যের একটি পুলিশের দল তার বাড়ী আদমপুর গ্রামে তল্লাশী করতে যাওয়া হয়। এ সময় তার বাড়ী থেকে ডাকাতি করা ২হাজার টাকা উদ্ধার করে ফেরার পথে জাঙ্গালের ব্রীজ নামক স্থানে সাইফুল ইসলামের সতির্থরা পুলিশের গাড়ী আটক করে এবং এলোপাতাড়িভাবে পুলিশ সদস্যদেরকে মারডাং করে পুলিশের হাতে আটক ডাকাত সাইফুলকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ করে গুলি ছুড়লে পুলিশও দশ রাউন্ড পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে সাইফুল মোল্লা পালিয়ে যাওয়ার সময় তার ডান পায়ে গুলি লাগে এবং পুনরায় তাকে আটক করা হয়। অপরদিকে পুলিশের গুলিতে ডাকাতেরা পালিয়ে গেলেও সেখান থেকে দুটি ধারালো দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয় এবং আহত সাইফুলকে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। ওসি মকছেদ আলী আরো বলেন, ধৃত ডাকাত সর্দার সাইফুল মোল্লার নামে ফুলবাড়ী থানায় ৬টি ডাকাতি মামলার ওয়ারেন্ট আছে। এছাড়া বিভিন্ন থানায় তার নামে একাধিক ডাকাতি ও ছিনতাই মামলা রয়েছে।

সহকারি পুলিশ সুপার ফুলবাড়ী সার্কেল ফয়জুর রহমান বলেন, ধৃত ডাকাত সাইফুল মোল্লা আন্তঃদেশ ডাকাত দলের সদস্য। তার নামে ফুলবাড়ীসহ বিরামপুর, হাকিমপুর, ঘোড়াঘাট, নবাবগঞ্জ ও অন্যান্য জেলায় ৮১টি ডাকাতি মামলার তথ্য পাওয়া গেছে।