শিক্ষক হত্যাচেষ্টায় ১০ দিনের রিমান্ডে ফাহিম

fahim_teacher_attackমাদারীপুর প্রতিনিধি – মাদারীপুরে কলেজশিক্ষক রিপন চক্রবর্তীকে হত্যা চেষ্টা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া গোলাম ফয়জুল্লাহ ফাহিমকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের পুলিশ হেফাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

শুক্রবার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক মো. সাইদুর রহমান তার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শুকদেব রায় এ তথ্য জানান।

রিপন চক্রবর্তীর ওপর হামলার ঘটনায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে মাদারীপুর সদর মডেল থানায় মামলা হয়। মামলায় ছয়জনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলার বাদী এসআই আয়ুব আলী বলেন, ফাহিমের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ছয়জনের নাম উল্লেখ করে মামলা হয়েছে।

আসামিরা হলেন, সালমান তাকসিন ওরফে আবুল হোসেন ওরফে শালিম (১৮), শাহরিয়ার হাসান ওরফে পলাশ (২২), জাহিন (২৩), রায়হান (২৪), মেজবাহ (২৪) ও ফাহিম (২০)। মামলায় ফাহিমকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

মাদারীপুর সরকারি নাজিমউদ্দিন কলেজের গণিত বিভাগের প্রভাষক রিপন চক্রবর্তীর ওপর গত বুধবার বিকেলে হামলা হয়। কলেজের পাশে নিজ বাসায় তাকে কুপিয়ে জখম করে তিন দুর্বৃত্ত। এ সময় স্থানীয় লোকজন ধাওয়া দিয়ে ফাহিমকে আটক করে পুলিশে দেয়।

রিপন চক্রবর্তী এখন শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। তিনি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

গ্রেপ্তার হওয়া ফাহিম মা-বাবার সঙ্গে রাজধানীর দক্ষিণখানের ফায়দাবাদে একটি পাঁচতলা বাড়ির দ্বিতীয় তলায় থাকতেন। উত্তরা হাইস্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে ২০১৪ সালে ওই কলেজে ভর্তি হন। এবার উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশ নেন তিনি।

পুলিশ বলেছে, ফাহিমকে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। হামলার কারণ ও তার সহযোগীদের ধরতে পুলিশের পাশাপাশি বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও র্যা।ব কাজ করছে।

ফাহিমের ঢাকার বাড়ির সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহের পাশাপাশি তার ব্যবহৃত কম্পিউটার জব্দ করা হয়েছে।