মানুষ হত্যা করে আ:লীগ সরকারকে উৎখাত করা যাবে না: নাসিম

nasim_17-06-16আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি : স্বাস্থ্য মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ভয় দেখিয়ে, আতংক সৃষ্টি করে, মানুষ হত্যা করে তারা আওয়ামী লীগ সরকারকে উৎখাত করতে চায়, কিন্তু এসব করে বর্তমান সরকারকে উৎখাত করা যাবে না। ২০১৯ সালের একদিন আগেও আওয়ামী লীগ নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতা ছাড়বে না।

শুক্রবার বিকেলে পাবনার হেমায়েতপুরে ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রম মাঠে সেবক নিত্যরঞ্জন হত্যার প্রতিবাদে আয়োজিত সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনি যদি মনে করেন, মানুষ হত্যা করে ক্ষমতায় যেতে পারবেন সেটা সম্ভব হবে না। সারাদেশের গুপ্ত হত্যা সম্পর্কে নাসিম বলেন, আস্তে আস্তে খুনিরা ধরা পড়ছে। নিত্যরঞ্জন পান্ডের খুনিরাও ধরা পড়বে। খুনিরা যেখানেই থাকুক, তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবেই।

নাসিম আরও বলেন, আমেরিকায় খুন হলে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নিন্দা জানান, খালেদা জিয়াও নিন্দা জানান। অথচ বাংলাদেশে খুন হলে খালেদা জিয়া নিন্দা জানান না। কারন খুনিরা তার লোক, আপনি সৎ হন তাহলে জামায়াত শিবিরের সাথে সম্পর্ক শেষ করে সুষ্ঠ রাজনীতি করেন।

পাবনার জেলা প্রশাসক রেখা রাণী বালোর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ, পাবনা-৫ আসনের এমপি গোলাম ফারুক প্রিন্স, পুলিশ সুপার আলমগীর কবির।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ডিলু বলেন, জামাত-বিএনপির মধ্যে যেসব জঙ্গী লুকিয়ে আছে তাদের গ্রেপ্তার করলে অনেক কিছু বেরিয়ে আসবে। আইএস এর ধুয়া তুলে সবার দৃষ্টি অন্যদিকে ঘুরিয়ে দেয়ার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। বিএনপি-জামাত রাজনীতিতে ব্যর্থ হয়ে এসব গুপ্ত হত্যাকান্ড চালিয়ে সরকারকে বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

পুলিশ সুপার আলমগীর কবির বলেন, নিত্যরঞ্জন পান্ডে হত্যার রহস্য আমরা উদঘাটন করবোই। ঘাতক যেখানেই থাকুক না কেন তাকে গ্রেপ্তার আমরা করবোই। তাদের ধরা পড়তেই হবে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তার বাইরে আলাদাভাবে ৬ জনকে তদন্ত তদারকি কমিটি করে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছি আমরা। আপনারা শুধু পুলিশের ওপর ভরসা রাখুন।

সভায় অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সাবেক রাষ্ট্রদূত নিম চন্দ্র ভৌমিক, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির পলিট ব্যুরোর সদস্য বিমল বিশ্বাস, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের আহবায়ক রেজাউল রশিদ খান, গণ আজাদী লীগ কেন্ত্রীয় কমিটির সভাপতি আতাউল্লা খান, ন্যাপের সহ-সাধারন সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি শফি উদ্দিন মোল্লা, গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা মাহমুদুর রহমান বাবু, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি রেজাউল রহিম লাল, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি গনেশ ঘোষ, হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ পাবনা জেলা শাখার সভাপতি চন্দন কুমার চক্রবর্তী, ঠাকুর অনুকুল চন্দ্র সৎসঙ্গ আশ্রমের সহসভাপতি আনন্দ মোহন হালদার প্রমুখ।