বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ভারতীয় হকি অধিনায়কের কাণ্ড..!

news_picture_33919_untitled-1_copy


স্পোর্টস ডেস্কঃ

ভারতীয় হকি দলের অধিনায়ক সর্দার সিংয়ের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক ব্রিটিশ নারী। এই মর্মে তিনি দক্ষিণ দিল্লি থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন।

আজ দিল্লি মহিলা কমিশনের চেয়ারপারসন স্বাতী মালিওয়াল নিজে ওই মহিলার সঙ্গে গিয়ে অভিযোগ দায়ের করে এসেছেন। ওই নারীর বিবৃতি অনুসারে, মাত্র ১৭ বছর বয়সেই সর্দার সিংয়ের সঙ্গে তাঁর প্রথম পরিচয় হয়। সর্দার তাঁকে বিবাহের প্রস্তাব দেন।

তাঁদের বাগদান পর্বও সারা হয়ে যায়। এরপর বিবাহের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ওই নারীর সঙ্গে শারিরীক সম্পর্ক গড়ে তোলেন ভারতীয় হকি দলের অধিনায়ক। চলে শারিরীক অত্যাচারও।

ওই নারীর আরও জানিয়েছেন, সর্দার নাকি তাঁকে বলপূর্বক যৌন সংগম করতে বাধ্য করত। ওই মহিলা আরও জানিয়েছেন, প্রতিদিন যৌন সংগমের কারণে ২০১৫ সালের মে মাসে তাঁর গর্ভে নাকি সন্তানও চলে এসেছিল।

কিন্তু, সর্দার সেই সন্তান নষ্ট করতে বাধ্য করে। অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে, অধিকাংশ ধর্ষণের ঘটনাই পাঞ্জাবে হয়েছে। গত ৩১ জানুয়ারি ওই মহিলা পঞ্জাব পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিলেন।

তবু আজ অবধি পাঞ্জাব পুলিশের পক্ষ থেকে একটিও মামলা দায়ের করা হয়নি। তিনি এও দাবি করেছেন, এই ঘটনার পরে তিনি সর্বভারতীয় হকি প্রেসিডেন্ট নরেন্দ্র বাতরার সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

কিন্তু, তিনি বিষয়টিকে একেবারেই পাত্তা দেওয়া হয়নি। বিষয়টি এসএআই-এর নজরেও আনা হয়। সেখান থেকেও আজ অবধি কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি।