বাবু নগরীসহ লাখো আলেম স্বাক্ষরিত ফতোয়া জারি

fotowa_16617_1466229211

সময়ের কণ্ঠস্বর- ধর্মের নামে জঙ্গিবাদকে হারাম ঘোষণা করে দেশের ১ লাখ ১ হাজার ৮৫০ম জন মুফতি ও আলেম স্বাক্ষরিত ফতোয়া জারি করেছে জমিয়তে ওলামায়ে ইসলাম।

ফতোয়ায় স্বাক্ষরকারী প্রখ্যাত আলেমদের মধ্যে রয়েছেন হেফাজতের মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, শায়খুল হাদিস আল্লামা আশরাফ আলী, মুফতি আবদুল হালিম বোখারী, মুফতি মনসুরুল হক, আল্লামা সুলান জওক নদভী, আল্লামা আবদুর রহমান হাফেজ্জী, আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ প্রমুখ।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) এক সংবাদ সম্মেলনে এ ফতোয়া জনসম্মুখে প্রকাশ করেন একলক্ষ আলেম, মুফতি ও ইমামদের ফতোয়া ও দস্তখত সংগ্রহ কমিটির আহবায়ক ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

নারী আলেমরাও ফতোয়ায় অংশ নিয়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার ব্যবস্থাপনায় গৃহীত ‘এক লাখ মুফতি, উলামা ও আইম্মাহর দস্তখত সম্বলিত সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী মানবকল্যাণে এই শান্তির ফতোয়া।

উদ্যোক্তারা আশা করছেন, এই ফতোয়া প্রকাশিত হলে সন্ত্রাস পুরোপুরি ঠেকানো না গেলেও বহুলাংশে হ্রাস পাবে এবং সন্ত্রাসের মদদদাতারা হতোদ্যম হবে।

মাওলানা মাসউদ বলেন, রাজধানীর চৌধুরীপাড়ায় জামিয়া ইক্বরা বাংলাদেশ মাদরাসায় এ নিয়ে চলে প্রস্তুতি। পুরুষ ও নারী মিলিয়ে মোট ১,০১,৮৫০ জন আলেম ও মুফতির স্বাক্ষর সম্বলিত ফতোয়ার ৩০ খণ্ড বাইন্ডিং এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যার মধ্যে ৯২,৫৩০ পুরুষ আলেম-মুফতি এবং ৯,৩২০ জন নারী আলেম-মুফতি।

তিনি বলেন, কতিপয় দুষ্কৃতকারী নিজেদের হীনস্বার্থ চরিতার্থের উদ্দেশ্যে মহাগ্রন্থ কুরআন ও হাদীসের অপব্যাখ্যা দিয়ে ইসলামের নামে বিভিন্ন স্থানে সন্ত্রাস ও আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। মানুষের চোখে ইসলামকে একটা বর্বর নিষ্ঠুর ও সন্ত্রাসী ধর্মরূপে চিত্রিত করছে। এতে সরলমনা কেউ কেউ বিভ্রান্তির শিকার হচ্ছেন।

এ অবস্থায় সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে ইসলাম ও মুসলমানদের কঠিন অবস্থান তুলে ধরার জন্য একলক্ষ দেশ বরেণ্য আলেম, মুফতি ও ইমামগণের দস্তখতসহ ফতোয়া সংগ্রহ করে তা প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানান ফরীদ উদ্দীন।

তিনি জানান, মূল ফতোয়ায় সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদকে কোরআন ও হাদিসের আলোকে হারাম বলা হয়েছে। এছাড়া জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে দারুল উলুম দেওবন্দ, মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসা, ইসলামিক রিসার্চ সেন্টার, চরমোনাই জামিয়া রশিদিয়া ইসলামিয়া, শায়খ জাকারিয়া রিসার্চ সেন্টার ও জামিয়াতুল আসআদ মাদ্রাসার ফতোয়াও এর সঙ্গে সংযুক্ত করা হয়েছে।