২ বছরে একই পরিবারে ৩ জনের অপমৃত্যু, এলাকায় শোকের মাতম

opomrritto - 18-06-16

এস.এম. আকাশ, মঠবাড়িয়া(পিরোজপুর) প্রতিনিধি: মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ আজ শনিবার সকালে উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের ওয়াহেদাবাদ গ্রামে পিয়ারা বেগম (৫৫) নামে এক বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করেছে। ৬ সন্তানের জননী পিয়ারা বেগম ওয়াহেদাবাদ গ্রামের মোঃ ফুল মিয়া হাওলাদারের স্ত্রী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, শুক্রবার বিকালে ইফতারি তৈরীর আগে পারিবারিক কলহের জের ধরে পিয়ারা বেগম ঘরে রক্ষিত চালের পোকা দমনের ট্যাবলেট খায়। আশংকাজনক অবস্থায় তাঁকে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে স্থানীয় মিরুখালী বাজারে সন্ধ্যায় তাঁর মুত্যৃ হয়। পুলিশ খবর পেয়ে আজ শনিবার সকালে বসতঘর হতে তাঁর মরদেহ উদ্ধার করে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ময়না তদন্তের জন্য বৃদ্ধার লাশ আজ পিরোজপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের হয়েছে।

উল্লেখ্য পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, ২০১৪ সালের ১৬ অক্টোবর পিয়ারা বেগমের ছোট ছেলে স্থানীয় দক্ষিণ মিরুখালী মুন্সি বাড়ি হেফজুল কুরআন শিশু সনদের ছাত্র মোঃ জালাল (১৩) এর (মাদ্রাসা সংলগ্ন জামে মসজিদ থেকে) গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। অপরদিকে ২০১৫ সালে ২৪ মে পিয়ারার ২য় মেয়ে মোসাঃ সালমা বেগম (২৮) এর লাশ উপজেলার ফুলঝুড়ি গ্রামে স্বামীর বসতঘর ঘর সংলগ্ন রান্না ঘরের চালায় ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। স্বামী, শাশুড়ি ও ননদ মিলে সালমাকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখে বলে ফুল মিয়ার পরিবার দাবী করেছে।

এদিকে ২ বছরে একই পরিবারের ৩ সদস্যের অপমৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় এখন শোকের মাতম চলছে।

হৃদয়/এসএস