সুন্দরগঞ্জে এলাকাবাসীর উদ্দ্যোগে স্বেচ্ছাশ্রমে সাঁকো নির্মাণ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:


hc-c

তিস্তা নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় স্বেচ্ছাশ্রমে সাঁকো নির্মাণ করেছেন এলাকাবাসী। বর্ষা মৌসুমে দুপাড়ের হাজার হাজার চরবাসীর দুর্ভোগ লাঘবে সাঁকোটি নির্মাণ করেন তারা। সুন্দরগঞ্জ উপজেলার নিজামখাঁ গ্রামের তাম্বুলপুর ছড়া নদী ও তিস্তার প্রশাখা পারাপারের জন্য এ সাঁকোটি নির্মাণ করা হয়।

এলাকাবাসীর ভাষ্য- দীর্ঘ দুই যুগ ধরে তিস্তার এই প্রশাখা ও ছড়া নদীর দুপাড়ের মানুষদের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। গত বছর বর্ষা মৌসুম গুলোতে নৌকা ও ভেলায় চড়ে যোগাযোগ রক্ষা করেছিলেন তারা। কখনো বা হাঁটু ও কোমর পানি পেরিয়ে যাতায়াত করতে হতো দুপাড়ের মানুষদের।

সাঁকোটি নির্মাণে ওই চরের স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থী, সাধারণ পথচারী, ব্যবসা-বাণিজ্য সহ সার্বিক যোগাযোগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে মনে করেন এলাকাবাসী।

ইতিপূর্বে এর বিকল্প হিসেবে সাত কিলোমিটার মেঠোপথ ঘুরে তাদের যাতায়াত করতে হতো। সাঁকোটি নির্মাণের ফলে উপজেলার খোর্দ্দা, লাঠশালা ও তারাপুর চরের হাজার হাজার মানুষ বর্ষা মৌসুমের ভোগান্তি দূর হবে বলে তারা মনে করেন। তারাপুর ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লেবু বলেন- সাঁকোটি নির্মাণে চর এলাকার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা সুগম হবে।