গুদিঘাটায় সদ্য নির্মিত বিধ্বস্ত বেইলী ব্রীজ দ্রুত নির্মাণের দাবিতে এলাকাবাসির মানববন্ধন

এস.এম. আকাশ, মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি:


jk.jpght

মঠবাড়িয়া-পাথরঘাটা-পিরোজপুর সড়কের মঠবাড়িয়া অংশের স্থানীয় গুদিঘাটায় সদ্য নির্মিত বেইলী ব্রীজটি দেড় মাস যেতে না যেতেই পাথর বোঝাই দুটি ট্রাক সহ বিধ্বস্ত হয়ে ঘটনাস্থলে একজন নিহত হয়। এরপর থেকে দক্ষিণাঞ্চলের প্রবেশ দ্বার উপকূলীয় মঠবাড়িয়া-পাথরঘাটার সাথে ১২টি রুটের সড়ক যোগাযোগ সম্পূর্ন বিচ্ছিন্ন হয়ে পরে। প্রতিদিন এ এলাকার হাজার হাজার যাত্রীরা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চলাচলে চরম দূভোগ পোহাচ্ছে।

ঈদের আগে বিধ্বস্ত ব্রীজটি পূণরায় নির্মানের দাবীতে এলাকাবাসি আজ রবিবার সকালে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) মঠবাড়িয়া শাখার উদ্যোগে পৌর শহরের শহীদ মিনার সম্মূখ সড়কে এ ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সড়ক অবরোধ করে প্রায় ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে নিরাপদ সড়ক চাই মঠবাড়িয়া শাখার সভাপতি আরিফ-উল-হক এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, নাগরিক কমিটির সভাপতি মজিবুল হক খান মজনু, বনিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম, প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুস সালাম আজাদী, ইউপি চেয়ারম্যান রিয়াজুল ঝনো, আ’লীগ নেতা ফজলুর হক মনি, হারুন-অর-রশীদ খান, যুবলীগ নেতা কামরুল ইসলাম আকন, ছাত্রলীগ নেতা তৌতিদ সোহেল ও মীর তারেক প্রমূখ।

বক্তারা আসন্ন ঈদের আগেই বিধ্বস্ত সেতুটি দ্রুত নির্মানের দাবি জানিয়ে বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের প্রবেশ দ্বার পাথরঘাটা-মঠবাড়িয়া-পিরোজপুর সড়কের গুরুত্বপূর্ণ এ বেইলী সেতুটি গত দেড় মাস আগে চলাচলের অযোগ্য ব্রীজটি ত্রুটিপূর্ন ভাবে সংস্কার করায় ব্রীজটি ধসে পড়ে। বক্তারা কাজে অনিয়ম ও নির্মান ত্রুটির কারনে সংশ্লিষ্ট সওজ প্রকৌশলীর বিচার চেয়ে ঈদের আগেই ব্রজিটি পুণরায় নির্মানের দাবী জানান।

উল্লেখ্য গত ১৫ জুন বুধবার ভোরে মঠবাড়িয়া-চরখালী সড়কের ৩৫ মিটার গুদিঘাটা বেইলী সেতু পাথর বোঝাই দুটি ট্রাক পাড় হওয়ার সময় সেতুটি ভেঙে দুই ট্রাক সহ খালে পড়ে যায়। এ সময় একজন শ্রমিক নিহত হয়।

মঠবাড়িয়ায় পানি বিশুদ্ধ করণ কর্মশালা

সোলার প্যানেলের মাধ্যমে পানি বি-লবনী করণ ও বিশুদ্ধ করণ প্রকল্পের সুফল ভোগীদের একদিনের কর্মশালা আজ রবিবার সকালে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে। উপজেলা পল্লী দারিদ্র বিমোচন কর্মকর্তা আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন পল্লী দারিদ্র বিমোচন ফাউন্ডেশন পিরোজপুর অঞ্চলের উপ-পরিচালক শামীম আরা সপনা, প্রজেক্ট ম্যানেজার মাহবুব হোসেন, প্রেসক্লাব সভাপতি আবদুস সালাম আজাদী, সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিজু, সুফল ভোগী মিরাজ মিয়া ও লাকী আক্তার প্রমূখ।

সভায় সোলার প্যানেলের মাধ্যমে উপকূলীয় মঠবাড়িয়ায় লবনাক্ত পানি লবন মুক্ত ও বিশুদ্ধ করণের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়।