‘রাশিয়া নকল ট্যাংক দিয়েছে ইসরাইলকে’

4bk622cde392d08ydd_800C450


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

রাশিয়া তার জাদুঘর থেকে একটি নকল ট্যাংক ফেরত দিয়েছে ইহুদিবাদী ইসরাইলকে। ইসরাইলের একজন সেনা বিশেষজ্ঞের বরাত দিয়ে এমন দাবি করেছে ইহুদিবাদী মিডিয়া নেটওয়ার্ক ‘আরুৎজ শেভা’।

১৯৮২ সালে লেবানন যুদ্ধের সময় ইসরাইলের কাছ থেকে আটটি ট্যাংক দখল করেছিল সিরিয়ার সেনারা। তার মধ্যে তিনটি ট্যাংক পাঠানো হয় রাশিয়ার জাদুঘরে। সম্প্রতি ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর অনুরোধে সেখান থেকে একটি ট্যাংক ফেরত দিয়েছে রাশিয়া। কিন্তু ইসরাইলের এক জেনারেল বলছেন, নেতানিয়াহু রাশিয়ার ‘ফাঁকিতে’ পড়েছেন; সেইসঙ্গে পুরো ইসরাইলি জাতিকে রুশ ফাঁকির কবলে ফেলেছেন।

সুলতান ইয়াকুব নামে ১৯৮২ সালের ওই যুদ্ধে সিরিয়া ইসরাইলের এম৪৮এ৩ মাগচা-৩ নামের একটি ট্যাংকসহ আটটি ট্যাংক দখল করে। সে যুদ্ধে ইসরাইল ৩০ জন সেনাকেও হারায়।

এসব ট্যাংক প্রদর্শনীর জন্য রাশিয়ার কুবিনকা জাদুঘরে পাঠানো হয় কিন্তু সম্প্রতি রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এর মধ্য থেকে ইসরাইলকে একটি ট্যাংক ফেরত দিতে রাজি হন। ইসরাইল এখন বলছে, এটি সেই ট্যাংক নয় যেটির মধ্যে ইসরাইলের তিন সেনা ছিল বলে তারা মনে করেছিল।

এ ট্যাংক সম্পর্কে নেতানিয়াহুর ফেইসবুক পেইজে বলা হয়েছে- “যুদ্ধে আমরা আমাদের তিন সেনা জাচারিয়া বমেল, জিভি ফেল্ডম্যান এবং ইয়েহুদা কাৎজকে হারিয়েছিলাম -এই ট্যাংক তারই একমাত্র প্রমাণ।” কিন্তু লেফটেন্যান্ট কর্নেল মাইকেল ম্যাস ইসরাইলের গণমাধ্যম ইয়েদিয়োথ অহরনোথকে বলেছেন, “এ ট্যাংক নকল”।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল ম্যাস বলেন, “ এটি অত্যন্ত দুঃখজনক যে, প্রধানমন্ত্রী ও পুরো জাতি নকলের কবলে পড়েছে। এটি নিখোঁজ হওয়া সেনাদের সেই ট্যাংক নয়। যে ট্যাংক ফেরত দেয়া হয়েছে তা সম্পূর্ণ ট্যাংক কিন্তু নিখোঁজ সেনাদের ট্যাংক ছিল ভিন্নতর। যদিও সুলতান ইয়াকুব যুদ্ধের সময় আটক হওয়া ট্যাংকের একটি এটি তবে এতে কোনো সেনা আহত হওয়ার কোনো চিহ্ন নেই।”

ইসরাইলের এ সেনা কর্মকর্তা আরো বলেন, “যখন নেতানিয়াহু বলছেন যেখানে হারিয়ে যাওয়া সেনাদের কবর পর্যন্ত নেই সেখানে এ ট্যাংক দেখে নিখোঁজ সেনাদের পরিবার পরিজন নিশ্চয় স্বস্তি বোধ করবে তখন তিনি আসলে দুটি ভুল করছেন। প্রথমত, এটি নিখোঁজ হওয়া সেনাদের ট্যাংক নয়। দ্বিতীয়ত, তারা নিখোঁজ হয়েছেন, হামলায় যারা যান নি।”

ইসরাইলের আরেক সেনা কর্মকর্তা বলেছেন, রাশিয়া যে ট্যাংক ফেরত দিয়েছে তার সিরিয়াল নাম্বার ভিন্ন। নিখোঁজ হওয়া ট্যাংকের নাম্বার ছিল ৮১৭৫৮১। তবে নেতানিয়াহুর দপ্তর এ বিতর্ক অবসানের জন্য কোনো মন্তব্য না করে বরং পিছু হটেছে।