দিনাজপুরে নির্বাচন পরর্বতী সহিংসতায় এক মহিলা গুলিবিদ্ধ, আহত-৪

gulibiddho dinajpur

শাহ্ আলম শাহী, স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকে: নির্বাচন পরর্বতী সহিংসতায় দিনাজপুরের বিরামপুর কাটলা সীমান্তে এক পরাজিত ইউপি মেম্বারের ছেলে নির্বাচিত ইউপি মেম্বর ও তার পরিবারের ব্যাপক মাধধর এবং গুলি চালিয়েছে। এতে জান্নাতুল ফেরদৌস মিমি (১৮) নামে এক মহিলা গুলিবিদ্ধ এবং ইউপি মেম্বার ময়নুল ইসলামসহ আরও ২ জন আহত হয়েছে। আজ রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় বিরামপুর কাটলা ইউপি’র সীমান্তের জিরো পয়েন্ট দক্ষিণ দাউদপুর জলাপাড়া এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। আহত অন্যরা হলেন, বুলু উদ্দিন কবিরাজ (৫০) ও জোসনা বিবি (৪৫)। গুলিবিদ্ধ জান্নাতুল ফেরদৌস মিমি (১৮)কে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং অন্য আহত ৩জনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জান্নাতুল ফেরদৌস মিমির অবস্থা অশংকা জনক বলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানিয়েছে। তার চোখের পাশে গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

কাটলা ইউপি’র ৮ নং ওয়ার্ডের পরাজিত ইউপি সদস্য আফিজ উদ্দিনের ছেলে মোস্তফা কামাল আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় তার লোকজন নিয়ে হঠাৎ নির্র্বাচিত ইউপি সদস্য ময়নুল ইসলামের উপর অতর্কিত হামলা করে। এ সময় ময়নুল ইসলামকে রক্ষার জন্য প্রতিবেশী বুলু উদ্দিন কবিরাজ (৫০) ও জোসনা বিবি (৪৫) এবং তার ভাবী জান্নাতুল ফেরদৌস মিমি (১৮) এগিয়ে যায়। মোস্তফা কামাল ও তার লোকজন তাদের উপরও হামলা চালায়। সেই সাথে একটি দেশীয় পিস্তল দিয়ে ভাবী জান্নাতুল ফেরদৌস মিমি চোখের কাছে গুলি করে পালিয়ে যায়।

বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুজ্জামান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। দোষীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এদিকে ঘটনাটি সীমান্তের জিরো পয়েন্টে ঘটায় বিজিবি এবং বিএসএফ সতর্ক অবস্থান নিয়েছে।