গরমে ইফতারিতে দরকার অধিক লেবুর সরবত…

sorbot


লাইফস্টাইলঃ

প্রকৃতিতে চলছে তীব্র তাপদাহ। বৈশাখের ছাতি ফাঁটা রোদে প্রাণ ওষ্ঠাগত প্রায়। তবু জীবিকা ও কাজের প্রয়োজনে আমাদের বাইরে বের হতেই হয়।  গরমের প্রকোপ থেকে স্বস্তি পেতে অনেকেই এসময়ে নানা ধরনের কোমল পানীয়, জুস, বিভিন্ন ধরনের ফলের রস, শরবত পান করে থাকেন।

কিন্তু এখন রাস্তাঘাট, ফাস্টফুড কিংবা স্ন্যাকসের দোকানে ঠাণ্ডা পানীয় ও শরবতের নামে আমরা যা গলাধঃকরণ করছি সেসবের বেশিরভাগই প্রিজারভেটিভ এবং কার্বন ডাই অক্সাইডযুক্ত হওয়ায় শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এই গরমে শরীর ও মন সতেজ রাখতে এবং সুস্থতার জন্য তাই দরকার প্রাকৃতিক কিছুর ওপর নির্ভরতা। লেবুর শরবত হতে পারে এক্ষেত্রে সবচেয়ে কার্যকরী পানীয়। গরমে প্রশান্তি লাভেরও অন্যতম উপায় লেবুর শরবত পান করা। লেবু অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ একটি ফল। এক গ্লাস লেবুর শরবত গরমে শরীরের পানি স্বল্পতা দূর করে আমাদের এনে দেবে প্রশান্তি।

এতে দেহের জন্য ক্ষতিকর কোনো উপাদান নেই। উল্টো মানুষকে সুস্থ রাখাসহ বিভিন্ন রোগ থেকে প্রতিরোধে লেবুর শরবতের রয়েছে অসাধারণ ক্ষমতা। লেবু শরবত তৈরি তেমন কষ্টসাধ্য নয় বিধায় আপনি চাইলেই স্বল্প সময়ে এটা নিজেই বানিয়ে পান করতে পারেন। এক গ্লাস পানিতে মাত্র দুই থেকে তিন টুকরো লেবুর রস দিয়ে তৈরি করতে পারেন শরবত। আপনি যদি মিষ্টি পছন্দ করেন তবে পছন্দমতো চিনি মিশিয়ে নিতে পারেন । লেবুর শরবতের রয়েছে বিশেষ কিছু পুষ্টিগুণ।

যা শরীরকে সতেজ রাখার পাশাপাশি ভিটামিনের ঘাটতিও পূরণ করে। নিশ্চিত করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। সাধারণত প্রতি ১০০ গ্রাম লেবুর রসে থাকে- ক্যালরি ১২ কিলোক্যালরি, পানি ৯৬ শতাংশ, ফাইবার ১.৮ গ্রাম, সুগার ৩ গ্রাম, ভিটামিন সি ৪০ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি ১০.০৬ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি ৬০.০৪ মিলিগ্রাম ও ভিটামিন বি-ই ০.৪ মিলিগ্রাম।

লেবুর রয়েছে নানা জাত ও নাম। সব লেবুর উপকারিতা একই রকম না হলেও মানব শরীরের জন্য সব লেবুই উপকারী। বাংলাদেশে লেবুর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, কাগজি, এলাচি, গোড়া, জারা, ঝোটা, চায়না, বীজশূন্য শরবতী ও চট্টগ্রামী লেবু।