‘কোনো অবস্থাতেই মীর কাসেমের ফাঁসি বহাল থাকবে না’

mahabub-adসময়ের কণ্ঠস্বর – একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া জামায়াতে ইসলামী নেতা মীর কাসেম আলীর সাজা রিভিউয়ের রায়ে কোনো অবস্থাতেই বহাল থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন তার প্রধান আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন।

আজ রবিবার রিভিউ আবেদন দাখিলের পর সুপ্রিম কোর্টের শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে সাংবাদিকদের কাছে এ মন্তব্য করেন তিনি। খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘আমরা মনে করি জসিম হত্যার অভিযোগ থেকে মীর কাসেম আলীকে অবশ্যই রিভিউতে খালাস দেবেন আপিল বিভাগ।’

এর সুনির্দিষ্ট কারণ হিসেবে মাহবুব বলেন, ‘আপিল বিভাগ নিজেই স্বীকার করেছেন ট্রাইব্যুনালে যে বিচার হয়েছে সেখানে তাকে অ্যাবেটর (সহযোগী) হিসেবে দেখানো হয়েছে। কিন্তু আপিল বিভাগ তাকে অ্যাবেটর না দেখিয়ে সরাসরি প্রধান আসামি হিসেবে সাজা দিয়েছেন। যেটা আইনের ব্যত্যয় ঘটিয়েছে। এটা আইনসম্মত হয়নি। সেই কারণেই আমরা বিশ্বাস করি চার্জ নম্বর ইলেভেনে যেখানে জসিম হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে তাকে ফাঁসি দেওয়া হয়েছে সেটা কোনো অবস্থায়ই বহাল থাকবে না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। যে অভিযোগে মীর কাসেমকে মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়েছে আপিল বিভাগ নিজেরাই স্বীকার করেছিলেন সেই চার্জ ডিফেকটিভ, তার পরেও সেই চার্জে তারা মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখলেন। এটা ন্যায়বিচারের পরিপন্থি এবং আমরা মনে করি ১১ নম্বর চার্জ, যেটা করা হয়েছে জসিমের মৃত্যুর ব্যাপারে সে ব্যাপারে আমরা আপিল বিভাগে রিভিউয়ের পরে আমরা খালাস পাব।’

খন্দকার মাহবুব বলেন, ‘মীর কাসেম আলী কিন্তু রাজনীতিবিদ ছিলেন না। তিনি একজন ব্যবসায়ী, সমাজ সেবক। তিনি দীর্ঘদিন বাংলাদেশের মাটিতে মানুষের শিক্ষা, মানুষের কল্যাণ ও সুচিকিৎসার জন্য কাজ করেছেন। বিশেষ করে বাংলাদেশের বেকার যারা আছেন তাদের কর্মসংস্থানে তিনি একজন সমাজসেবক হিসেবে কাজ করেছেন।’