দুই ধর্ষকের নাম প্রকাশে স্বস্তির নিশ্বাস টিম ইন্ডিয়ার !

indian cricketer raped

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক-

আনকোরা দল নিয়েও তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করেছিলো মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন ভারত। প্রথম টি২০তে অবশ্য লড়াই করে মাত্র ২ রানে হেরে যায় তারা। তবে  এই হারের সঙ্গে আরেকটি দুঃসংবাদ যোগ হয় টিম ইন্ডিয়া শিবিরে। খবর ছড়িয়ে পড়ে জিম্বাবুয়েতে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটার। বিষয়টি নিশ্চিত করেন জিম্বাবুয়ের হারারে সহকারী পুলিশ কমিশনার চ্যারিটি চারাম্বা।

তবে শেষ পর্যন্ত ভারতীয় ক্রিকেটারদের বাঁচিয়ে দেবার অভিযোগই উঠলো জিম্বাবুয়ে এবং বিসিসিআই’র বিরুদ্ধে এবার । দুইদিনের নানা লুকোচুরির  পর পরিচয় প্রকাশ করা হলো গ্রেফতারকৃত দুই ভারতীয়ের। অনেকটা অনুমেয়ই ছিলো অবশ্য আগে থেকে। নাম প্রকাশের পর  দেখা যাচ্ছে পরিচয় প্রকাশ হওয়া দু’জন কোনভাবেই ক্রিকেটার নন কিংবা দলের সঙ্গে যুক্তও কেউ নন। তারা দু’জনই ভারতের নাগরিক। খেলা দেখার জন্য জিম্বাবুয়েতে অবস্থান করছিলেন।

এর আগে শনিবার স্থানীয় এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় দুই ভারতীয়কে। প্রথমে বলা হয় তাদের মধ্যে একজন ভারতীয় দলের ক্রিকেটারও রয়েছে। যদিও বিষয়টা ভারতীয় দুতাবাস এবং ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে অস্বীকার করা হচ্ছিল। অবশেষে সোমবার হারারে পুলিশ জানিয়েছে, কোনো ভারতীয় ক্রিকেটার নয়, গ্রেফতারকৃতরা হল ভারত-জিম্বাবোয়ে ওয়ানডে সিরিজের স্পনসরদের এক সদস্য কৃষ্ণ সত্যনারায়ণ এবং জাম্বিয়ার এক ব্যবসায়ী রাজকুমার কৃষ্ণণ।

ওয়ানডে সিরিজের জন্য টিম ইন্ডিয়া যে হোটেলে উঠেছিল সেখানেই ওই দু’ অভিযুক্তও ছিলেণ বলে জানিয়েছে হারারে পুলিশ। রোববার সকাল থেকেই জিম্বাবুয়ের ওয়েবসাইটে টিম ইন্ডিয়ার হোটেলে ধর্ষণের খবর জানানো হয়। ঘটনার সঙ্গে জড়িত রয়েছে এক জন ভারতীয় ক্রিকেটার, এমনটাই গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। শেষমেশ বিবৃতি দিয়ে তা খণ্ডন করে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

এদিকে, আজ (সোমবার) গ্রেফতারকৃদের পরিচয় প্রকাশ্যে আসার পর স্বস্তির নিঃশ্বাসও ফেলেছে টিম ইন্ডিয়া। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ক্রিকেটার বলেন, ‘থ্যাঙ্কস গ়ড! বিষয়টার নিষ্পত্তি হল। আমাদের কয়েক জন তো এটাও জানত না যে, এ ধরনের কিছু ঘটনা ঘটেছে। দেশ থেকে বার বার ফোন আসতে থাকায় ধর্ষণের খবর সম্পর্কে জানতে পারলাম।’ অন্য এক ভারতীয় ক্রিকেটার বলেছেন, ‘এ রকম ভুয়ো খবরে আমাদের উপর যথেষ্ট বিরূপ প্রভাব পড়ে।’

জিম্বাবুয়ে পুলিশ এখন জানাচ্ছে, নির্যাতিতা নারী স্থানীয় নয়, দক্ষিণ আফ্রিকার বাসিন্দা। হারারেতে একটি শেষকৃর্তানুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে টিম ইন্ডিয়ার হোটেলে উঠেছিলেন তিনি। ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত ৩৩ বছরের কৃষ্ণ সত্যনারায়ণ ও রাজকুমার কৃষ্ণণের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালতে তোলা হলে তাদের পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। আজ হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছে অভিযুক্তদের আইনজীবীরা।