দুর্দান্ত গোলে সবাইকে ছাড়িয়ে ইতিহাসের পাতায় মেসি!

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক  – ফুটবলের ক্ষুদে জাদুকর লিওনেল মেসি। যার কাছে সব রেকর্ড যেন আছড়ে পড়তে চায়। ক্লাবের হয়ে দারুণ সব রেকর্ডের জন্ম দেওয়া লিওনেল মেসির নামে একটা দুর্নাম ছিল। ‘মেসি আর্জেন্টিনার নয় সে বার্সেলোনার’। তবে সেই অপবাদ ঘূচিয়েছেন অনেক আগেই। এবার দেশের জার্সিতে দারুণ গোলে নিজেকে একক উচ্চতায় নিয়ে গেলেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা।

হয়তো এটাই হবে সেই মুহূর্ত, ইতিহাস গড়ার সেই মুহূর্ত…। ভাষ্যকারের কথা শেষ হয়েছে কি হয়নি, তাঁর ভবিষ্যদ্বাণীকে সত্যি করে দিলেন লিওনেল মেসি। মাঝারি দূরত্বের অবিশ্বাস্য এক ফ্রি কিক। যেন কাঁটা কম্পাস দিয়ে মেপে নেওয়া পথ ধরে গোলরক্ষককে অসহায় দর্শক বানিয়ে ঢুকে গেল জালে।

আজ বুধবার সকালে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে কোপা আমেরিকার সেমি-ফাইনালে দারুণ এক গোলে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড গড়েছেন মেসি।

যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টনের রেলিয়েন্ট স্টেডিয়ামে লাভেজ্জির প্রথম গোলে অবদান রাখার পর ম্যাচের ৩২ মিনিটে রেকর্ড গড়া গোলটি করেন মেসি। ডি-বক্সের খানিকটা বাইরে মেসিকে ফাউল করে বিপদ ডেকে আনেন ক্রিস ওন্ডোলোভস্কি। তারপর ঐশ্বরিক বাঁ পায়ের বাঁকানো এক শটে যুক্তরাষ্ট্রের জালে বল পাঠান তিনি।

meesi-recordটুর্নামেন্টে নিজের পঞ্চম গোল। আর সেই গোল দিয়েই গড়লেন ইতিহাস। হয়ে গেলেন আর্জেন্টিনার সর্বকালের সেরা গোলদাতা। পেরিয়ে গেলেন গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতাকে। ব্যক্তিগত অর্জনের এই রাতে মেসির দল আর্জেন্টিনাও যুক্তরাষ্ট্রকে ৪-০ হারিয়ে উঠে গেছে ফাইনালে।

প্রীতি ম্যাচের দুটি গোল ফিফা বাতিল করায় বাতিস্তুতার গোল সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৫৪-তে। কোয়ার্টার ফাইনালেই বাতিগোলের রেকর্ডটা ছুঁয়েছিলেন মেসি। আজ পেরিয়ে গেলেন দীর্ঘদিন এই রেকর্ডে বাতিঘর হয়ে থাকা বাতিগোলকেও।

বাতিগোল, বাতিস্তুতাকে আদর করে দেওয়া ভক্তদের ডাকনাম। কোপা আমেরিকা শুরুর আগে বাতিস্তুতার চেয়ে চার গোল পেছনে ছিলেন মেসি। পানামা ম্যাচে ১৯ মিনিটে হ্যাটট্রিকের পর কোয়ার্টার ফাইনালে দলের তৃতীয় গোলটি করেন। ৬০তম মিনিটে করা গোলটাই মেসিকে বসিয়ে দেয় বাতিস্তুতার পাশে।

দেশের জার্সিতে ১১২ ম্যাচ খেলে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড গড়লেন মেসি। এর আগে গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতা ৫৪ গোল করেছিলেন ৭৮ ম্যাচ খেলে। আর্জেন্টিনার হয়ে এখন মেসির গোল ৫৫টি। বাতিস্তুতাকে ছাড়িয়ে বার্সেলোনার ফরোয়ার্ডই এখন আর্জেন্টিনা ইতিহাসের সর্বোচ্চ গোলদাতা।