SOMOYERKONTHOSOR

ছদ্মবেশে নারী গোয়েন্দা ঈদ মার্কেটে

সময়ের কন্ঠস্বর: ঈদ উপলক্ষে অভিজাত শপিংমল ও ব্যস্ততম এলাকায় মানুষের ভিড় বাড়ে। বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষ কেনাকাটা করতে আসেন। টাকার লেনদেন বাড়ে। ব্যস্ত হয়ে উঠে শপিংমলগুলো। তখন শপিংমল গুলোর ভেতরে ও বাইরে দুর্বৃত্তরা সক্রিয় থাকে। মার্কেটে আসা পুরুষ ও নারীদের বিভিন্ন হয়রানি করে।

বিশেষ করে নারীরা ইভটিজিংয়ের শিকার হয়। কেউবা শপিংমলের বাইরে ছিনতাইয়ের শিকার হয়। উচ্ছৃঙ্খল বখাটেরা দলবেঁধে ঘুরে বেড়ায়। তারা নারীদের উদ্দেশ্য বিভিন্ন মন্তব্য ছুঁড়ে দেয়। ইভটিজিং ও ছিনতাইরোধে ঈদ মার্কেটে ছদ্মবেশে মাঠে নেমেছে নারী গোয়েন্দা পুলিশ। ব্যস্ততম ঈদ মার্কেটে অপরাধীকে শনাক্ত করতে কাজ করবেন তারা। পুলিশের পাশাপাশি স্থানীয় পর্যায়ে বিভিন্ন মার্কেটের নিরাপত্তারক্ষী ও আনসার সদস্যরাও সহযোগিতা করবেন তাদের।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি (পূর্ব) মাহাবুবে আলম বলেন, ‘বিভিন্ন উৎসব-পার্বণে শপিংমল ও শৌখিন স্থানগুলোতে আমাদের চৌকস নারী গোয়েন্দারা মাঠে থাকেন। এতে ওই এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্য ঠিকমতো পাওয়া যায়। দুর্বৃত্তরা ওই নারী সদস্যদের দেখে বুঝতেই পারেন না যে তিনি পুলিশের সদস্য।ঈদ ও রোজা উপলক্ষে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ডিবি, এসবি, এনএসআই ও র্যাাবের গোয়েন্দারা মাঠে কাজ করেন। তাদের মূলত সহযোগিতা করার জন্য নারী গোয়েন্দা সদস্যরা কাজ করবেন। প্রতিবারের মতো এবারও তাদের মাঠে নামানো হয়েছে।’

ইভটিজিং ও ছিনতাই রোধে ডিবি পুলিশের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কৌশল নির্ধারণ করা হয়েছে। ওই কৌশলের অংশ হিসাবে নারী গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যদের মাঠে নামানো হয়েছে। এ ব্যবস্থা ঢাকার বাইরে বিভাগীয় শহরগুলোতেও করা হয়েছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।