আশুলিয়ায় কিশোরীকে অনৈতিক কাজে রাজি না হওয়ায় নির্যাতন

মোঃ মনির মন্ডল, সাভার প্রতিনিধি:


nirjaton

আশুলিয়ায় অসামাজিক কাজে রাজি না হওয়ায় হতদরিদ্র এক রিকশা চালকের মেয়েকে শারিরীক নির্যাতনের পর মাথার চুল কেটে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর রিকশা চালক বাবা লিখিত অভিযোগের কপি নিয়ে থানা চত্বরে দুই দিন ঘুরোঘুরির পর ওসির তদারকিতে তা আমলে নেওয়া হয়েছে।

নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরীর বাবা রিকশা চালক মিজানুর রহমান বলেন, ইউনিক এলাকার একটি ভাড়া বাসা নিয়ে তিনি তার পরিবার বসবাস করেন। কিন্তু দীর্ঘ দিন যাবৎ অত্র এলাকার মৃত রফিকের বখাটে সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ ছেলে রাজু তার মেয়েকে বিভিন্ন সময় অনৈতিক কাজে লিপ্ত করার চেষ্টা করে আসছিলো। এতে তার মেয়ে সাড়া না দেওয়ায় গত সোমবার সকালে দলবল নিয়ে তার বাসায় অনুপ্রবেশ করে সন্ত্রাসী রাজু। পরে তার মেয়েকে জোরপূর্বক মোটর সাইকেলে তুলে নিয়ে যায় তারা। এরপর দূরবর্তী এলাকায় তার মেয়েকে এক দিন আটকে অমানবিক নির্যাতন চালায় রাজু। পরে ব্যাপক মারধরের পর তার মেয়ের মাথার চুল কেটে দেয় রাজু ও তার সঙ্গীরা। এরপর মঙ্গলবার সকালে নিজ বুদ্ধিমত্তায় রাজুর কবল থেকে পালিয়ে বাড়িতে ফিরে আসতে সক্ষম হয় তার কিশোরী মেয়ে।

তিনি আরো বলেন, তার অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় মেয়ের এহেন অবস্থায় চিকিৎসা খরচও যোগানো তার পক্ষে দূরহ হয়ে পড়েছে। এমনকি মেয়ের নির্যাতনের বিচার পেতে অভিযোগ লেখাতে সক্ষম হলেও তা নিয়ে গত দুই দিন যাবৎ থানা চত্বর মারাচ্ছেন তিনি।

তবে এব্যপারে আশুলিয়া থানার ডিউটি অফিসার (এএসআই) ফারজানা আক্তার অভিযোগটি নেওয়ার কথা সাংবাদিকদের সামনে স্বীকার করলেও এ সংক্রান্ত কোন নথি দেখাতে পারেননি।

এদিকে ভুক্তভোগীর হয়রানির এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহসিনুল কাদির সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, অভিযোগ নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাটি তদন্তের প্রক্রিয়া অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।