প্রচণ্ড খরা থেকে বাঁচতে চীন থেকে ‘মেঘ’ কিনছে ভারত!

chin

অবাক পৃথিবী ডেস্ক- বিশ্বে প্রযুক্তিতে এগিয়ে থাকা দেশগুলোর একটি চীন। নানা রকম প্রযুক্তি আবিষ্কার এবং দামী প্রযুক্তি একেবারে কমদামে বিশ্ববাসীর কাছে তুলে দেয়ায় চীনের বিকল্প খুঁজে পাওয়া কঠিন। সম্প্রতি তারা ভারতকে এমন একটি প্রযুক্তি সহায়তার ব্যাপারে ভাবছে। যা শুনলে চমকে যাবেন আপনি।

প্রতি বছর গ্রীষ্ম মৌসুমে ভারতের কয়েকটি রাজ্যে ব্যাপক খরা এবং তাপদাহ দেখা দেয় যা সাধারণ মানুষের জীবনে অভিশাপ হয়ে নেমে আসে। প্রচণ্ড খরা আর পানির অভাবে মৃত্যু হয় অনেক মানুষের।

এমতাবস্থায় চীন ভারতকে এমন একটি প্রযুক্তি সহায়তা দিবে যার দ্বারা আকাশে কৃত্রিম মেঘ বানিয়ে তার দ্বারা নিজেদের সময় সুযোগ মত বৃষ্টি নামানো যাবে। এতে করে খরার এই মহামারির অবসান হবে।

এখন আপনি ভাবছেন আকাশ থেকে কিভাবে মানুষে ইচ্ছামত বৃষ্টি নামাতে পারে? হ্যা, চীনের বিজ্ঞানীরা এটি সম্ভব করেছেন। বেশ কয়েক বছর আগে চীনেও দেখা দিয়েছিলো প্রচণ্ড খরা এবং পানির সংকট। এমতাবস্থায় তারা এই প্রযুক্তি আবিষ্কার করে।

আকাশে রকেট পাঠিয়ে ভাসা ভাসা মেঘের মধ্যে সিলভার আয়োডাইড লবণ ছড়িয়ে দেয়া হয়। এর ফলে মেঘ একত্রিত হয়ে পানিতে পরিণত হয় এবং তা বৃষ্টি আকারে মাটিতে পড়ে। মরাঠাওয়াড়ায় ওই মেঘ বানানোর প্রযুক্তি সরবরাহ করার জন্য দিনকয়েক আগে মহারাষ্ট্র ঘুরে যান বেইজিং, সাংহাই ও পূর্ব চিনের আনহুই প্রদেশের বিজ্ঞানীরা।

তারা মহারাষ্ট্রের আবহাওয়া দফতরের কর্তাদের ওই মেঘ বানানোর প্রযুক্তি শেখাবেন। রকেট ছুঁড়ে হাল্কা মেঘের মধ্যে সিলভার আয়োডাইড লবণ গুঁজে দিয়ে সেই মেঘকে জলে ভরিয়ে তোলার প্রযুক্তি বেশ কিছু দিন আগেই আবিস্কার করেছে চিন। সেই প্রযুক্তির সুবাদে গোটা বিশ্বেই ব্যাপক সুনাম হয়েছে চিনের। তাই গত দু’টি মরশুমে খরাক্লিষ্ট মরাঠাওয়াড়ায় তড়িঘড়ি বৃষ্টি নামাতে ব্যস্ত হয়ে উঠেছে মহারাষ্ট্র সরকার। সে জন্যই তারা দ্বারস্থ হয় চিনের।