নীলফামারীতে ঈদ উপলক্ষে ভিজিএফ’র চাল পাচ্ছেন ৪ লাখ পরিবার

high

নীলফামারী প্রতিনিধি: নীলফামারী জেলায় পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে প্রায় চার লাখ হতিদরিদ্র মানুষ ভিজিএফ’র চাল পাচ্ছেন। ঈদের আগে প্রায় ৮ হাজার মেট্রিক টন চাল সুবিধাভোগী ওইসব মানুষদের মাঝে বিতরণ করা হবে । সরকার সুবিধাভোগীদের ১০ কেজির পরিবর্তে এবার বরাদ্দ দিয়েছে ২০ কেজি ভিজিএফ’র চাল।

জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তার কার্যালয় সুত্র জানায়, ছয় উপজেলায় ৩ লাখ ৮৪ হাজার ৭৮৬ জনের বিপরীতে ৭ হাজার ৬৯৫.৭২০ মেট্রিক টন এবং চার পৌরসভার ১৩ হাজার ৮৬৩ জনের বিপরীতে ২৭৭.২৬০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়।

এর মধ্যে নীলফামারী সদর উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নের ৮৯ হাজার ৩৭৪ জনের বিপরীতে ১৭৮৭.৪৮০ মেট্রিক টন, সৈয়দপুর উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের ৪৩ হাজার ৬৮৩ জনের বিপরীতে ৮৭৩.৬৬০ মেট্রিক টন, ডিমলা উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ৬৬ হাজার ২১৩ জনের বিপরীতে ১৩২৪.২৬০ মেট্রিক টন,  ডোমার উপজেলার ১০ ইউনিয়নে ৫২ হাজার ৯২২ জনের বিপরীতে ১০৫৮.৪৪০ মেট্রিক টন, জলঢাকা উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ৭৬ হাজার ৮৬৮ জনের বিপরীতে ১৫৩৭.৩৬০ মেট্রিক টন, কিশোরগঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ৫৫ হাজার ৭২৬ জনের বিপরীতে ১১১৪.৫২০ মেট্রিক টন, এবং নীলফামারী পৌরসভার ৪ হাজার ৬২১ জনের বিপরীতে ৯২.৪২০ মেট্রিক টন, সৈয়দপুর পৌরসভার ৪ হাজার ৬২১ জনের বিপরীতে ৯২.৪২০ মেট্রিক টন, জলঢাকা পৌরসভার ৩ হাজার ৮১ জনের বিপরীতে ৬১.৬২০ মেট্রিক টন ও ডোমার পৌরসভার ১ হাজার ৫৪০ জনের বিপরীতে ৩০.৮০০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা ত্রাণ ও পুর্নবাসন কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম জানান, ইতোমধ্যে উপজেলা পর্যায়ে বরাদ্দের চিঠি পাঠানো হয়েছে। সুবিধাভোগীদের মধ্যে খুব শীঘ্রই চাল বিতরণ করা হবে বলে জানান তিনি।