মান্দায় মহাসড়কে গণডাকাতি: আটক এক ডাকাত, আহত এক সেনা সদস্য

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা, মান্দা (নওগঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁর মান্দায় গত মঙ্গলবার রাত ১ টার দিকে এক সংঘবন্ধ ডাকাত দল নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে গাছের গুড়ি ফেলে ব্যারিকেট দিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিক্সার গতিরোধ করে গণ ডাকাতি সংঘঠিত করেছে। উপজেলার কুশুম্বা ইউনিয়ন পরিষদের দক্ষিণে গ্রামীন ফোনের টাউয়ারের পার্শ্বে এক গভীর নলকূপ সংলগ্ন স্থানে রোড ডাকাতির এই ঘটনা ঘটে। এ সময় ডাকাতের মারপিটে আবু বকর সিদ্দিক (৩৫) নামে এক সেনাবাহিনীর ল্যান্স কর্পোরাল আহত হয়েছেন।

mass robberyযাত্রীদের আর্ত চিৎকারে পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয়রা এগিয়ে এসে হাজি গোবিন্দপুর গ্রামের ফকির পাড়ার (জোলাপাড়া) জিল্লুর রহমান ফকিরের ছেলে রুবেল হোসেন (২৪) নামে ডাকাত দলের এক সদস্যকে আটক করে। পরে তাকে পুলিশে সোর্পদ করা হয়। আহত সিদ্দিককে উদ্ধার করে স্থানীয় মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি কুশুম্বা গ্রামের মছির উদ্দিন সরদারের ছেলে।

চিকিৎসাধীন আহত সেনা সদস্য সিদ্দিক জানান, ঘটনার দিন তিনি যশোর সেনানিবাস থেকে ছুটি নিয়ে ট্রেনযোগে বাড়ি ফিরছিলেন। রাজশাহী স্টেশনে নেমে রেলগেট থেকে সিএনজি চালিত অটোরিক্সায় করে অপর তিনজন যাত্রীর সাথে বাড়ি আসার পথ্যিমধ্যে উক্ত স্থানে প্যেঁছলে পূর্ব থেকে ওঁতপেতে থাকা ৫/৬ জনের এক দল ডাকাত পথরোধ করে অটোরিক্সার সামনের গ্লাস ভেঙ্গে তাদের মারপিট আরম্ভ করে। তার নিকট থাকা নগদ ৫ হাজার ৭শত টাকা, একটি সামস্যাং স্মার্ট ফোন, নিলুফা বেগমের সোনার গহনা ছিনিয়ে নেয়। ডাকতদল প্রায় আধা ঘন্টা ধরে মহাসড়কে ৫-৬টি মাইক্রোবাস, ও বেশ কয়েকটি ট্রাক ভাংচুর করে লুটপাট ও তান্ডব চালায়ূ। এসময় ডাকাত আতঙ্কে সড়কের উভয় পার্শ্বে প্রায় ১০টি মাইক্রোবাস এবং ৩০ টি ট্রাক আটকা পড়ে জ্যামের সৃষ্টি হয়। স্থানীয় গ্রামবাসি যাত্রীদের ডাক-চিৎকারে এগিয়ে এসে ধাওয়া দিয়ে রুবেলকে আটক করে।  কুশুম্বা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নওফেল আলী মন্ডল জানান, উক্ত এলাকায় সম্প্রতি আরও ২টি এরকম ঘটনা ঘটেছে।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাফফর হোসেন জানান, আটক রুবেল হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ঘটনায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।