ইউরোতে রোনালদোর অনন্য রেকর্ড

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – গতকাল বুধবার হাঙ্গেরির সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করে ‘এফ’ গ্রুপের তৃতীয় হয়েছে পর্তুগাল। সেই সঙ্গে তৃতীয় স্থানের সেরা চারটি দলের একটি হয়ে পরের রাউন্ডে চলে গেছে পর্তুগাল। শেষ ষোলোতে পর্তুগালের প্রতিপক্ষ ক্রোয়েশিয়া।

জোড়া গোল করে পর্তুগালকে ইউরোর শেষ ষোলোতে তোলার পথে ইতিহাস গড়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোর চারটি মূল প্রতিযোগিতায় গোল করলেন পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড।

ম্যাচের ৫০ মিনিটে নিজের প্রথম গোল করে ইতিহাসে নাম লেখান রোনালদো। ৬২ মিনিটে আরেকটি গোল করে দলকে পরাজয়ের হাত থেকে বাঁচান রিয়াল মাদ্রিদ তারকা।

বিশ্বের একমাত্র ফুটবলার হিসেবে টানা ৪ ইউরোতে গোল করার রেকর্ড এখন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর। ২০০৪, ২০০৮, ২০১২ ও ২০১৬-ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের এই চার আসরেই প্রতিপক্ষের জালে গোল করে ইতিহাসের পাতায় জায়গা করে নিলেন রোনালদো।

ইউরোতে রোনালদো প্রথম গোল করেছিলেন ২০০৪ সালের আসরে, গ্রুপ পর্বে গ্রিসের কাছে পর্তুগালের ২-১ গোলে হারের ম্যাচে। পরে সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে করেন আরেকটি গোল।

ronaldo-portugalপরের আসরে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড একটি গোল করেছিলেন গ্রুপ পর্বে চেক রিপাবলিকের বিপক্ষে। ২০১২ ইউরোতে ডাচদের বিপক্ষে করেন জোড়া গোল। পরে কোয়ার্টার ফাইনালে চেক রিপাবলিকের বিপক্ষে করেন আরেকটি গোল।

আর এবারের ইউরোতে প্রথম দুই ম্যাচে গোলবঞ্চিত থাকলেও হাঙ্গেরির বিপক্ষে জোড়া গোল করে অনন্য রেকর্ড গড়লেন। রোনালদো ছাড়া ইউরোর চারটি মূল প্রতিযোগিতায় গোল করার রেকর্ড নেই আর কারো।

ইউরোর তিনটি মূল প্রতিযোগিতায় গোল করার কীর্তি আছে ছয় জনের- জালাতান ইব্রাহিমোভিচ (২০০৪ থেকে ২০১২),জার্গেন ক্লিন্সম্যান (১৯৮৮ থেকে ১৯৯৬), ভ্লাদিমির স্মাচার (১৯৯৬ থেকে ২০০৪), থিয়েরি অঁরি (২০০০ থেকে ২০০৮), নুনো গোমেস (২০০০ থেকে ২০০৮), হেল্ডার পোস্তিগা, (২০০৪ থেকে ২০১২)।