• আজ ২০শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

নাতনীকে ধর্ষণ করে নোয়াখালী থেকে দৌড়ে পালানো সেই বৃদ্ধ দাদা অবশেষে ঢাকা থেকে গ্রেফতার

১:০৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুন ২৩, ২০১৬ Breaking News, অপরাধ, আলোচিত, স্পট লাইট

নোয়াখালী প্রতিনিধি :

নোয়াখালীর সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নে নাতনীকে ধর্ষণ করে দৌড়ে পালানো সেই লম্পট দাদাকে অবশেষে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ।

শিশু ধর্ষণকারী মোস্তফা মিয়াকে (৬০)কে  ঘটনার দুই দিনপর বুধবার দুপুর ১২টার দিকে গাজীপুর থেকে  গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত মোস্তফা মিয়া গোরাপুর গ্রামের আলী আহমদ মাস্টার বাড়ির মৃত হজু মিয়ার ছেলে।

সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার গাজীপুরে মোস্তফার এক আত্মীয়ের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২০ জুন সকালে একই বাড়ির (সম্পর্কে দাদা)মোস্তফার ঘরে বসে টিভি দেখছিল ওই বাড়ির বাসিন্দা ও রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী (১০)।

নোয়াখালীতে টিভি দেখার সময় ঘরে একা পেয়ে দশ বছরের নাতনিকে ধর্ষণ করেন  ৫০ বছর বয়সী দাদা মোস্তফা মিয়া। এসময় নাতনির আর্তচিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এলে দৌড়ে পালিয়ে যায় ওই লম্পট।

rape-somoyerkonthosor

সোমবার দুপুরের দিকে সদর উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের গোরাপুর গ্রামের আলী আকবর মাস্টার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মেয়েটি রতনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। অভিযুক্ত দাদা আকবর মাস্টারের বাড়ির মৃত হজু মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, সোমবার দুপুরে মোস্তফা মিয়ার ঘরে টিভি দেখার ঘরে কেউ না থাকার সুযোগে নাতনিকে ধর্ষণ করেন। নাতনির আর্তচিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে এলে দৌড়ে পালিয়ে যায় মোস্তফা। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে নোয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায় প্রতিবেশিরা।

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী জানান- শিশুটির অবস্থা আশঙ্কাজনক। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে।