‘দেশ বিক্রির কার্যক্রম শুরু করেছে সরকার’

rijbi

সময়ের কণ্ঠস্বর- এই সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিত ভাবে দেশ বিক্রির কার্যক্রম শুরু করে দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

রিজভী বলেন, ‘‘ভোটারবিহীণ সরকার গণবিরোধী সিদ্ধান্ত নিতে কখনোই কুন্ঠিত হয় না। তাদের অর্থনৈতিক দর্শণ হচ্ছে লুটপাটনির্ভর। ফলে আগ্রাসী লুটপাটে যদি দেশকেও বিক্রি করতে হয়, তারা তাই করবে। যার আলামত দেশবাসী ইতোমধ্যে দেখতে শুরু করেছে। এই সরকার অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে দেশ বিক্রির কার্যক্রম শুরু করেছে।”

দেশের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তা সম্পূর্ণরুপে বিপন্ন হয়ে পড়েছে উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে প্রবাহিত অভিন্ন ৩৭টি নদীর পানি প্রবাহের গতিপথ ভারতের উজানে ডাইভার্ট করে ভারতে শুস্ক অঞ্চলের দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য যে প্রস্তুতি প্রয়োজন তা প্রায় সম্পন্ন। তাছাড়া ইতোমধ্যে দেশের অবকাঠামো না থাকলেও আশুগঞ্জ বন্দর ব্যবহার করে নামমাত্র ১৯২ টাকায় ট্রানজিটের নামে করিডোর দেয়া হয়েছে বলেও রিজভী মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, উগ্রবাদী জঙ্গিদের উৎপাত, তাদেরকে ধরার জন্য দেশের সাধারণ মানুষের ওপর ভয়াবহ নির্মম ক্র্যাকডাউন, পাইকারী হারে বিচারবহির্ভূত হত্যার বিভীষিকার ডামাডোল সৃষ্টি করে জনগণের দৃষ্টিকে এই দিকে রেখে অত্যন্ত দ্রুততার সাথে দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা, ভৌগলিক ও পরিবেশগত অস্তিত্ব এবং দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিকে বিপন্ন করে সরকার নিরবে দেশবিরোধী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় রিজভী আরো বলেন, পবিত্র রমজাণ মাস সংযম ও আত্মশুদ্ধির মাস হলেও ভোটারবিহীন সরকার দেশবাসীকে উপহার দিচ্ছে লাশ আর রক্তের হোলিখেলা। চারিদিকে চলছে হত্যা, গুপ্তহত্যা, বিচারবহির্ভূত হত্যা, পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্য, চাঁদাবাজী ও লুটপাটের রাজত্ব।”