একজনের নামেই ৬০ হাজার নিবন্ধিত সিমের ভয়াবহ তথ্য !

সময়ের কণ্ঠস্বর- একজনের নামে ৬০ হাজার নিবন্ধিত সিমের তথ্য পাওয়া গেছে বলে সংসদকে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

বৃহস্পতিবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর পর্ব টেবিলে  সাংসদ  জেবুন্নেসা আফরোজের প্রশ্নের জবাবে তারানা হালিম বলেন, ‘মোবাইল ফোনের সিম নিবন্ধন করতে গিয়ে একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে ৬০ হাজার নিবন্ধিত সিমের ভয়াবহ তথ্য পাওয়া গেছে।’

মোহাম্মদ ইলিয়াছের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে মোবাইল ফোন গ্রাহকের সংখ্যা ১৩ কোটি ২৬ লাখ ৪৯ হাজার ১৫৮ জন। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম যাচাই হয়েছে ১১ কোটি ৬০ লাখ গ্রাহকের।’
sim-reji

এর আগে যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়া জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের ছবি সম্বলিত একটি লিফলেট ও দুটি বই ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের বাসায় পাঠানো হয়েছে বলে বুধবার সন্ধ্যায় জানিয়েছেন তারানা হালিম।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, “পার্সেল সার্ভিসের মাধ্যমে দুটি ছোট আকারের জিহাদি বই ও একটি লিফলেট পাঠানো হয় আমার বাসার ঠিকানায়। “বাসার নিরাপত্তাকর্মীদের পার্সেল দেখে সন্দেহ হলে তারা সেটি খুলে আমাকে এ বিষয়ে অবহিত করে।”
প্রচারপত্রের উপরে মুজাহিদের ছবি রয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, “সেখানে লেখা রয়েছে, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা অন্যায় এবং এগুলো রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড।”
গত বছর ২১ নভেম্বর মুজাহিদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় আল-বদর বাহিনীর নেতৃত্ব দেওয়া মুজাহিদ জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল ছিলেন।
‘জিহাদি’ বই ও প্রচারপত্র পাঠানোর বিষয়ে তারানা হালিম বলেন, “ভয় দেখানো বা বিরক্ত করার জন্যই এ কাজ করা হতে পারে। তবে এসবে ভয় পাই না।
“তবে তারা আমার বাসার ঠিকানা কীভাবে পেল তা চিন্তার বিষয়।” বিষয়টি গুলশান থানায় জানানোর পর রাতেই পুলিশ এসে ওই বই ও প্রচারপত্র নিয়ে গেছে বলে জানান তিনি।
এর আগে গত পহেলা বৈশাখেও প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছিলেন সাংস্কৃতিক অঙ্গণ থেকে রাজনীতিতে আসা তারানা হালিম। সে সময় নববর্ষের শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে তাকে পাঠানো এক পার্সেলে র‌্যাপিং পেপারে মোড়ানো কাফনের কাপড়, আতর ও গোলাপজল ছিল। –