ভাঙলো ডান পা, অস্ত্রোপচার হল বাম পায়ে!

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক – সিঁড়ি থেকে পড়ে গিয়ে ডান পা ভেঙেছেন আর চিকিৎসকরা তাঁর বাম পায়ে অস্ত্রোপচার করেছেন। রোগীর প্রতি চিকিৎসকদের এই চরম অবহেলার চিত্র দেখা গেছে ভারতের দিল্লির শালিমার বাগে ফর্টিস হাসপাতালে। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার এই হাসপাতালের দুই শল্যচিকিৎসক (অর্থোপেডিক সার্জন), দুই নার্স এবং এক অপারেশন টেকনিশিয়ানকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

ইন্ডিয়া টাইমস জানিয়েছে, সিঁড়ি থেকে পড়ে রবি রায়ের ডান পা ভেঙে যায়। তিনি ফর্টিস হাসপাতালে ভর্তি হন। কিন্তু চিকিৎসকরা ডান পায়ের পরিবর্তে তাঁর বাম পায়ে একাধিক স্ক্র লাগিয়ে দেন।

রবির পরিবার জানায়, শুরুতেই তাঁরা ভুল হচ্ছে বলে চিকিৎসকদের অস্ত্রোপচার বন্ধ করতে বলেন।

oparationরবির বাবা রাম করণ রায় বলেন, ‘চিকিসৎসকরা জানান, হাড়গুলো জোড়া লাগানোর জন্য অস্ত্রোপচার করা জরুরি। আমরাও রাজি হই। কিন্তু বিমার কাগজ তৈরির জন্য কিছু সময় চেয়েছিলাম। এই সময়ের মধ্যেই তারা কীভাবে ভুল পা চিহ্নিত করে সেটিতে অস্ত্রোপচার করে ফেলল। এটি চিকিৎসকদের ভুল। তাদের অবশ্যই যথাযোগ্য শাস্তি দিতে হবে।’

অস্ত্রোপচারের পর যখন রবি জ্ঞান ফিরে দেখেন তার ডান পা নয় বাম পায়ে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তখন তিনি চিৎকার করতে থাকেন।

এ ঘটনায় হাসপাতাল একটি বিবৃতি দিয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘গতকালের ঘটনার তদন্ত করতে আমরা অবিলম্বে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছি। প্রাথমিক তদন্তে এই কমিটি ওই অস্ত্রোপচার দলের অবহেলাকে দায়ী করেছে। আমাদের রোগীদের জন্য আমরা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে বাধ্যবাধকতাগুলো পালন করে থাকি। এই জায়গায় কোনো অবহেলা সহ্য করা হয় না। এ ঘটনায় চিকিৎসক ও কর্মকর্তাসহ হাসপাতালের পাঁচজনকে বরখাস্ত করা হয়েছে।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘তদন্ত এখানো বাকি আছে। তদন্ত শেষ হলে আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’