‘সোনার বাংলা এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

lal-sobuj-train-udbhodon

সময়ের কন্ঠস্বর: রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের `সোনার বাংলা এক্সপ্রেস' ট্রেনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন  উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  আজ শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন। এর ফলে বাংলাদেশ রেলওয়েতে আরও একটি ট্রেন যুক্ত হলো। সোনার বাংলা এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে ১৬টি যাত্রীবাহী বগি রয়েছে। এতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কোচের পাশাপাশি শীতাতপহীন কোচও রয়েছে। তবে এ ট্রেনে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কোচের সংখ্যাই বেশি।

রোববার সকাল ৭টায় ট্রেনটি বাণিজ্যিকভাবে যাত্রী নিয়ে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেবে। আধুনিক এ ট্রেনটির প্রতিটি আসন করা হয়েছে পর্যাপ্ত জায়গা নিয়ে। শোভন থেকে শুরু করে স্লিপিং- প্রতিটি আসনে যাত্রীরা যাতে আরামে বসতে পারেন সে জন্য এক আসন থেকে আরেক আসনের মাঝে যথেষ্ট ফাঁকা জায়গা রাখা হয়েছে। আরামদায়ক আসন ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।

রেল কর্মকর্তারা জানান,  প্রতিদিন সকাল ৭টায় ঢাকা থেকে ছেড়ে কোন যাত্রাবিরতি না করে ট্রেনটি চট্টগ্রাম পৌঁছাবে দুপুর ১২টা ৪০ মিনিটে। একইভাবে চট্টগ্রাম থেকে বিকেল ৫টায় ছেড়ে যাত্রাবিরতি না করে রাত ১০টা ৪০ মিনিটে পৌঁছাবে ঢাকায়। শনিবার ছাড়া সপ্তাহের সব দিন এ নিয়মে চলবে সোনার বাংলা। সুবর্ণ এক্সপ্রেসের মতো ট্রেনটিতে ঢাকায় শুধু কমলাপুর ও বিমানবন্দর স্টেশন থেকে যাত্রী ওঠানামা করবে।

ট্রেনের পরিচালক ফারুক আহমেদ জানান, সোনার বাংলায় রয়েছে দুটি এসি স্লিপিং চেয়ার, চারটি এসি চেয়ার, সাতটি শোভন চেয়ার, একটি খাবার গাড়ি ও একটি পাওয়ার কার। প্রতিটি এসি চেয়ারে ৫৫টি, এসি স্লিপিংয়ে ৩৩টি, শোভন চেয়ার ৬০টিসহ ৭৪৬টি আসন রয়েছে। এসি স্লিপিং চেয়ার এক হাজার ২০০ টাকা, এসি চেয়ার ১ হাজার টাকা আর শোভন চেয়ারের ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৬০০ টাকা।