‘হিজবুল্লাহ ও সিরিয় বাহিনীর হামলায় ৬০০ সন্ত্রাসী ও ৮০টি ট্যাংক ধ্বংস’

tankk


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, সৌদি আরব এবং আমেরিকার তাকফিরি প্রকল্পের কারণে মধ্যপ্রাচ্য এখন হুমকির মুখে রয়েছে। এই অশুভ শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই করছে হিজবুল্লাহ আন্দোলন।

হিজবুল্লাহর কমান্ডার মুস্তাফা বদরুদ্দিনের শাহাদাতের ৪০ দিন পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক সমাবেশে হাসান নাসরল্লাহ এসব কথা বলেছেন। গত মাসে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাছে উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হামলায় বদরুদ্দিন শহীদ হন।

সমাবেশে হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, বদরুদ্দিন ছিলেন হিজবুল্লাহর অত্যন্ত শক্তিশালী ও সাহসী কামন্ডার যিনি কখনো লেবাননের প্রতিরোধ আন্দোলনকে রক্ষা করতে গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন নি। বদরুদ্দিন বিশ্বাস করতেন, সিরিয়া ও ইরাকে তাকফিরি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে হিজবুল্লাহর বড় ভূমিকা থাকা দরকার।

৫৫ বছর বয়সী হিজবুল্লাহর এ কমান্ডার সিরিয়া থেকে উগ্র সন্ত্রাসীদের বিতাড়িত করার লড়াইয়ে হিজবুল্লাহর সামরিক শাখার নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন। ২০১১ সালে সিরিয়ায় সহিংসতা শুরুর পর থেকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রায় প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার সঙ্গে কমান্ডার বদরুদ্দিন জড়িত ছিলেন।

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, গত কয়েক মাসে তুরস্ক ও সৌদি আরব হাজার হাজার সন্ত্রাসী পাঠিয়েছে সিরিয়ায় কিন্তু তারা বাশার আল-আসাদের সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারে নি। আলেপ্পো শহরের লড়াইয়ে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা প্রায় পরাজিত হচ্ছিল বলে আরব গণমাধ্যমগুলো যে খবর দিয়েছে তাকে মিথ্যা অভিহিত করে হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, হিজবুল্লাহ ও সিরিয়ার সেনাবাহিনীর যৌথ হামলায় শুধু জুন মাসেই ৬০০’র বেশি সন্ত্রাসী ও তাদের প্রায় ৮০টি ট্যাংক ও সামরিক যান ধ্বংস করা হয়েছে। তাকফিরি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে হিজবুল্লাহর কমান্ডারদের এ লড়াই অব্যাহত থাকবে বলে হাসান নাসরুল্লাহ সুস্পষ্ট ঘোষণা দেন।