‘বাবুল আক্তারকে আসামিদের মুখোমুখি করা হয়’

montri

সময়ের কণ্ঠস্বর- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, পুলিশ সুপার (এসপি) বাবুল আক্তারকে গ্রেপ্তার করা হয়নি, আসামিদের চিহ্নিত করতে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়। শনিবার সন্ধ্যায় সাংবাদিকেদর এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাবুল আক্তারের স্ত্রী হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় সম্প্রতি সন্দেহভাজন বেশ কয়েকজনকে আমরা ধরেছি। তাদেরকে শনাক্ত এবং এই হত্যা মামলার তদন্তের সহযোগিতার জন্য বাবুল আক্তারকে আসামিদের মুখোমুখি করা হয়।

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, দায়িত্ব পালনকালে বাবুল আক্তার তো অনেক সন্ত্রাসীকে ধরেছেন। এসব সন্ত্রাসীদের চিনেন কিনা সে জন্যই তাকে ডেকে নেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ৫ জুন চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ে শিশু সন্তানের সামনে কুপিয়ে ও গুলি করে পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুকে হত্যা করা হয়। পরের দিন ভোরে নগরীর বাদুরতলা বড় গ্যারেজ এলাকা থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার করা মোটরসাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘটনার পর পুলিশ দাবি করে বাবুল আক্তারের জঙ্গিবিরোধী ভূমিকার কারণেই তার স্ত্রীকে হত্যা করা হয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে সারাদেশে শুরু হয় জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কথিত ক্রসফায়ারে নিহত হয় কমপক্ষে ৬ জঙ্গি।

মিতু হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে গোয়েন্দা পুলিশ, র‌্যাব, সিআইডি, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ও কাউন্টার টেররিজম ইউনিট (সিটিআই)। তবে মামলার মূল তদন্তে আছে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। যদিও সবগুলো সংস্থা মিলে এখনও তেমন কোনো রহস্য উদঘাটন করতে পারেনি।