কেরোসিনের আগুনে দগ্ধ স্ত্রী, ঘাতক স্বামী আটক

fire-

হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাইছমা এলাকায় স্বামীর কেরোসিনের আগুনে দগ্ধ হয়েছে স্ত্রী। আগুনে দগ্ধ সুখেনা খাতুন এখন কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় স্বামী মাজাহারুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানাগেছে, কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলার পুমদী ইউনিয়নের আতিরা গ্রামের রিকসা চালক কাঞ্চন মিয়ার মেয়ে সুখেনা খাতুনকে বিয়ে করেন মাজাহারুল ইসলাম। চার বছরের দাম্পত্যজীবনে তাদের সংসারে এক কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ের সময় মেয়ের পরিবারের পক্ষ থেকে ওই সময় ছেলের পক্ষকে কিছু টাকা যৌতুক প্রদান করা হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের টাকা জন্য প্রায় সময় স্ত্রীকে নির্যাতন করতো মাজাহারুল।

এরই ধারাবাহিকতায় রোববার (২৬ জুন) সকালে দশ হাজার টাকা যৌতুক এনে দেয়ার দাবি করে মাজাহারুল। এ নিয়ে উভয়েই কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে মাজাহারুল ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ করে দেয়। পরে ঘরে থাকা কেরোসিন স্ত্রীর গায়ে ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় মাজাহারুল। এসময় সুখেনা খাতুনের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে। আগুনে দগ্ধ সুখেনা খাতুনকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়। এ ব্যাপারে কর্তব্যরত ডাক্তার সাকিব জানান, রোগীর যে অবস্থা তাতে আমরা শংকা মুক্ত নই,আপাতত চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। রোগীর লোকজন চাইলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে পারেন।

হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেলের প্রোগ্রাম অফিসার মাহফুজ হাসান জানান, রোগীর চিকিৎসা ও আইনি সহায়তা করা হবে।

এব্যাপারে হোসেনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নান্নু মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনায় জড়িত স্বামী মাজাহারুলকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।