আপনি কি শারীরিকভাবে “ফিট” আছেন? বুঝে নিন ৫টি লক্ষণে

image_218480.20264_1


লাইফস্টাইলঃ

আপনি কি শারীরিকভাবে ফিট? ওজনটা কম নাকি বেশী? অন্য কোন সমস্যা হচ্ছে কি? নিজের শরীরের দিকে আমরা অধিকাংশ মানুষই মনযোগ দেই না। অথচ এটা জানাটা অত্যন্ত জরুরি যে আপনার শরীরটা মোটামুটি ভালোভাবে চলছে কিনা। কীভাবে জানবেন? কীভাবে বুঝবেন আপনার শারীরিক ক্ষমতা একেবারে সঠিক মাত্রায় আছে এবং আপনি যথেষ্ট সুস্থ জীবনযাপন করছেন? আসুন জেনে নিই ছোট ছোট কিছু বিষয়ে।

আপনি সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে পারছেন :
খেয়াল করে দেখুন আপনি সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠতে পারছেন কি না। একজন সুস্থ মানুষ স্বাভাবিকভাবেই ৮ ঘণ্টা ঘুমিয়ে থাকে। আপনি এর কম সময় ঘুমিয়ে থাকেন? অথবা আপনার কি সকালে ঘুম থেকে উঠতে খুব কষ্ট হয়, বা দুর্বল লাগে? এই ধরনের কোনো সমস্যা না থাকলে বুঝে নিন আপনি শারীরিকভাবে ফিট রয়েছেন।

ভারী কোনোকিছু বহন করতে পারছেন কি না :
সুস্থ মানুষ ভারী কিছু খুব স্বাভাবিকভাবেই বহন করতে পারেন। খেয়াল করে দেখুন আপনি এই কাজটি করতে পারছেন কিনা। আপনি এই কাজটি করার সময়ে অল্পতেই হাঁপিয়ে উঠছেন কি না? এমন সমস্যা না হলে আপনি শারীরিকভাবে সুস্থ।

১০ এর অধিক লাফাতে পারছেন কি না :
লাফানো বা জাম্প করা একটি শারীরিক ব্যায়াম। এটি করলে শরীর সুস্থ থাকে। কিন্তু খেয়াল করে দেখুন তো আপনি এই শারীরিক ব্যায়ামটি সুস্থভাবে ১০ বারের বেশি করতে পারছেন কি না? যদি খুব একটা না হাঁপিয়ে করতে পারেন তাহলে আপনি শারীরিকভাবে ফিট।

খাওয়াটা সঠিক মাত্রায় হচ্ছে কি না :
সঠিক মাত্রায় খাওয়া একজন সুস্থ মানুষের লক্ষণ। অতিরিক্ত খাওয়া বা কম খাওয়া শারীরিক অসুস্থতার লক্ষণ। তাই খেয়াল করে দেখুন আপনার প্রতিদিনের খাওয়ার মাত্রাটি সঠিক পর্যায়ে আছে কি না। যদি থেকে থাকে তাহলে আপনি শারীরিকভাবে ফিট একজন মানুষ।

ওজন ঠিক আছে কি না :
নির্দিষ্ট লম্বা অনুযায়ী নির্দিষ্ট ওজন হওয়া স্বাভাবিকতার লক্ষণ। ওজন কম হওয়া যেমন শারীরিক অসুস্থতার লক্ষণ তেমনি ওজন বেশি হওয়াও ফিট না হওয়ার লক্ষণ। তাই আপনার শরীরের লম্বা অনুযায়ী ওজনটি মেপে দেখুন ঠিক আছে কিনা। যদি থেকে থাকে তাহলে ভেবে নিন আপনি একজন শারীরকভাবে ফিট এবং সুস্থ একজন মানুষ।