ঝিনাইদহে খাদ্য নিরাপত্তা আইনে প্রথম মামলায় অভিযুক্ত “কুষ্টিয়া দধি ভান্ডার”

আরাফাতুজ্জামান, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি: ঝিনাইদহে খাদ্য নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা প্রথম মামলায় ফেঁসে গেছে শহরের এইচএসএস সড়কে অবস্থিত কুষ্টিয়া দধি ভান্ডার নামে একটি মিষ্টির দোকানের মালিক ও ম্যানেজার। আজ সোমবার ঝিনাইদহের একটি আদালত থেকে তাদের নামে ওয়ারেন্ট জারী করা হয়েছে। ঝিনাইদহ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের বিচার ফাহমিদা জাহাঙ্গীর অপরাধ আমলে নিয়ে এই আদেশ জারী করেন।

khado-law

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, কুষ্টিয়া দধি ভান্ডারের মালিক ঝিনাইদহ শহরের কলা বাগান পাড়ার অসিত কুমার ঘোষের ছেলে শ্রী বীরেন্দ্র কুমার ঘোষ ও দোকানের ম্যানেজার একই পাড়ার সুবল চন্দ্রের ছেলে উজ্জল কুমার। মামলার বাদী ঝিনাইদহ শহরের চরখাজুরা গ্রামের মৃত শাহাদত হোসেনের ছেলে আব্দুল ওহাব আদালতে অভিযোগ করেন, রবিবার বিকালে ঝিনাইদহ শহরের এইচএসএস সড়কে অবস্থিত কুষ্টিয়া দধি ভান্ডার থেকে দুইশ টাকা দিয়ে এক কেজি কালো চমচম কিনে বাসায় যান। ইফতারের সময় তিনি প্যাকেট খুলে দেখেন মিষ্টি দিয়ে দুর্গন্ধ বের হচ্ছে। আসামীরা আর্থিক ভাবে লাভবান হওয়ার জন্য প্রতারণা পুর্বক নিম্নমানের পচা চমচম বিক্রি করে আসছে। যা মানুষের শরীরের জন্য চরম ক্ষতিকর। এই মিষ্টি খেলে মানুষের স্বাস্থ্যহানী হওয়ার সম্ভব রয়েছে। মানব দেহের জন্য এ ধরণের দুর্গন্ধযুক্ত মিষ্টি তৈরী, বিক্রি ও মজুদ নিরাপদ খাদ্য আইন পরিপন্থি। মামলাটি আমলে নিয়ে আদালত আসামীদের প্রতি ওয়ারেন্ট জারী করেছেন।