ঈদে পুরুষের পছন্দের শীর্ষে রয়েছে পাঞ্জাবি

মেহেদী হাসান গালিব, কন্ট্রিবিউটার লাইফস্টাইল রাইটার, সময়ের কণ্ঠস্বর।

আমোদ প্রিয় জাতি হিসেবে বাঙালির পরিচিতি বিশ্বজুড়ে। বিভিন্ন ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে জন্মদিন, বিয়ে, নববর্ষ, বর্ষা বরণসহ আরো শত শত উৎসবে বছরের প্রায় পুরো সময়টা জুড়েই আমাদের দেশে বিরাজ করে আনন্দঘন পরিবেশ।

এসব উৎসবের কোন কোনটিতে ধর্ম, গোত্র ও জাতিভিত্তিক বিভেদ থাকলেও বিভেদ নেই কেবল একটিমাত্র বিষয়ে। আর তা হল বাঙালিয়ানা। বাংলার সংস্কৃতি, ইতিহাস ও ঐতিহ্য যেনো প্রতিটি উৎসবের সাথেই নিবিড়ভাবে মিশে আছে। প্রতিটি উৎসবই তার নিজস্ব রং ও ঢঙে স্বাতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত। আর যেসব বৈশিষ্ট্য একটি উৎসবকে অন্য একটি উৎসব থেকে আলাদা করে থাকে, তার অন্যতম একটি হল পোশাক।

পোশাক নির্বাচনে মেয়েরা যেমন শাড়িকে এগিয়ে রেখেছে, তেমনি ছেলেদের ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে পাঞ্জাবি। বাঙালি ছেলেদের মনে পাঞ্জাবির যে আবেদন, তা কখনো ফুরিয়ে যাবার মত নয়। কিশোর, তরুণ মাঝবয়সী থেকে শুরু করে বুড়োদেরও পছন্দের শীর্ষে রয়েছে পাঞ্জাবি। পাঞ্জাবির এই আবেদন সেই আবহমানকাল থেকেই বাঙালির হৃদয়ে পরম যত্নে লালিত হয়ে আসছে।

panjabi

পাঞ্জাবি এমন একটি পোশাক যা ঈদ, পূজা, বিয়ে ও নববর্ষ থেকে শুরু করে যেকোনো উৎসবেই ব্যবহার করা যায়। শুধু পরিবর্তন আসে এর নান্দনিকতা ও ডিজাইনে। যেমন, নববর্ষে ছেলেরা প্রাধান্য দেয় সাদা ও লাল রঙের পাঞ্জাবির ওপর আবার বসন্ত বরণে প্রিয়জনের সাথে ঘুরতে গেলে পছন্দ করে হলুদ কিংবা রঙিন কোন পাঞ্জাবি পড়তে। পাঞ্জাবির এই বৈচিত্র‍্য ও প্রতিটি উৎসবের মেজাজে খাপ খাওয়ানোর বৈশিষ্ট্যের জন্যই বাঙালি হৃদয়ে এর গ্রহণযোগ্যতা এতো বেশি। আবার সব ঋতুতেই পাঞ্জাবি পড়ে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করা যায় জন্য এর ব্যবহার ব্যাপক।

ঈদের ক্ষেত্রে পাঞ্জাবির মধ্যে বিভিন্ন বৈচিত্র্য ও ধরণ লক্ষ্য করা যায়। আসন্ন ঈদ উপলক্ষ্যে দেশের বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলো ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী নতুন আঙ্গিকের পাঞ্জাবি বাজারে নিয়ে আসছে। সুতি পাঞ্জাবির মধ্যে হাতের কাজ করা পাঞ্জাবি এখন ছেলেদের প্রধান আকর্ষণ। এছাড়া রং ও ডিজাইনের বৈচিত্র্যও পাঞ্জাবি নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

গ্রামীণ ঘরানার পাঞ্জাবিতে এবার বেশ নতুনত্ব এসেছে। ব্লক ও স্ক্রিন প্রিন্টের মাধ্যমে পাঞ্জাবি জুড়ে ফুটে উঠছে আমাদের সবুজ শ্যামল বাংলার অপরুপ প্রকৃতির গল্প। আগে লং পাঞ্জাবি বেশ চললেও সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ক্রেতারা এখন ছুটছেন শর্ট পাঞ্জাবির দিকে। এবারের ঈদে পাঞ্জাবির কাপড়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু কাপড় হল খাদি, মটকা, রাজশাহী সিল্ক, আদি মহিশুর সিল্ক, জয়শ্রী সিল্ক ও সুতি।

পাঞ্জাবির রং ও ডিজাইন নির্বাচনে ব্যক্তির রুচি ও নিজস্ব পছন্দ-অপছন্দ প্রধান ভূমিকা পালন করে। কেউ হালকা রঙের পাঞ্জাবি পড়তে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন, আবার কাউকে বা গাঢ় রঙের পাঞ্জাবিতেই বেশ মানায়। তবে রং ও ডিজাইন ব্যক্তি বিশেষে ভিন্ন হওয়া সত্ত্বেও বাঙালি মনে পাঞ্জাবির যে আবেদন, তা অভিন্ন ও একই সুতোয় গাঁথা। পাঞ্জাবি শুধুমাত্র একটি পোশাকই নয়, বরং এটি আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির ধারক ও ছেলেদের আভিজাত্যের প্রতীক!

ঈদে যদি পাঞ্জাবী কিনবেন ভেবে থাকেন তবে এখনই সময় করে চলে যান শো রুম বা শপিং মলে আর কিনে ফেলুন পছন্দের পাঞ্জাবী।