টঙ্গীর জোড়া খুনের ঘটনায় আটক-৫

গাজীপুর প্রতিনিধি: মহানগরের টঙ্গীর এরশাদনগর এলাকায় জোড়া খুনের ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী কামরুজ্জামান কামু সহ (৩০) পাঁচজনকে আটক করেছে ‌র‌্যাব-১।  দিবাগত রাতে সাভারের পলাশবাড়ি এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটককৃত অপর চারজন হলেন- কামরুজ্জামান কামুর সহযোগী মোঃ আলী (২৬), মোবারক হোসেন (৩৪), মোঃ সাগর (২২) ও নাজমুল ইসলাম (২০)।

jora-ghun

‌র‌্যাব-১ কোম্পানি কমান্ডার মহিউল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাতেই টঙ্গীর এরশাদনগর এলাকা থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত রামদা ও চাপাতি উদ্ধার করা হয়।

এর আগে গত ১৪ মে (শনিবার) দিবাগত রাতে টঙ্গীর এরশাদনগর এলাকায় আলাউদ্দিনের ছেলে শরীফ হোসেন ও একই এলাকার হারুন খানের ছেলে জুম্ম ন মিয়াকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ১৫ মে (রবিবার) সকালে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

নিহত শরীফ হোসেন স্থানীয় শেখ রাসেল শিশু কিশোর পরিষদের ৪৯ নং ওয়ার্ড সভাপতি ছিলেন। আর নিহত জুম্মান ছিলেন শরীফের সহযোগী। জুম্মান স্থানীয় একটি টুপি কারখানায় শ্রমিক হিসেবে কাজ করতেন।

রবিবার রাতে নিহত শরিফ হোসেনের মা ইয়ানুর বেগম বাদী হয়ে কামরুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে ১২ জনের নাম উল্লেখ সহ অজ্ঞাত আরো ১০-১২ জনকে আসামি করে টঙ্গী থানায় মামলা দায়ের করেন।