মাদারীপুরে যাত্রিবাহী বাস খাদে: আহত-১০

মেহেদী হাসান সোহাগ, মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুরে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে ঘটকচর এলাকায় আজ মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিক যাত্রিবাহী লোকাল বিসমিল্লাহ্ পরিবহনের পাবনা ব-৩২২ নাম্বারের বাসটি মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে গিয়ে খাদে পড়ে ১০ জন আহত হয়।

bus-khade

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আহত যাত্রিদের অভিযোগ বাসের বাম পাশে মহিলাদের বসার আসন রাখায় বাসের ড্রাইভার তাদের সাথে ফালতু আলাপ কালে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়। এছাড়াও বাসের ড্রাইভার গাড়ি চলানোর সময় ফোনে কথা বলতে দেখা যায় বলে জানায় আহত যাত্রিরা।

লোকাল বাসের যাত্রী আলম বলেন, অন্য একটা গাড়ি মুখোমুখি চলে আসায় বাসটি বাম দিকে নেয়ার কারনে বাসটি আর উঠাতে পারেনি। এরপরেই বাসটি দুটি পল্টি খেয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়।

বাসের যাত্রি আলী আকবর ড্রাইবারদের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ড্রাইবার যদি সাইডে বসে মহিলাদের সাথে কথা বলে তাহলে এমন এক্সসিডেন্টতো হতেই পারে। এমন ফিটনেস ছাড়া ও ড্রাইবারদের সঠিক প্রশিক্ষন ছাড়া বাস চলানো উচিৎ নয়।

বাস শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারী মোঃ মিজানুর রহমান হাওলাদার ঘটনা স্থান পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের বলেন, এখানে বিভিন্ন ধরনের যান চলাচল করে তার ফলেই দুর্ঘটনা হয়ে থাকে। ড্রাইবারে দোষ ও অশর্তকতা থাকতে পারে। রাস্তায় অনিয়ন্ত্রিত গাড়ী চলে রাস্তায় নছিমুন, করিমুন অনেক অংশই এ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী।

bus-utia-gasa

মাদারীপুর ফায়ার সার্ভিস এর সাব অফিসার আক্তার হোসেন বলেন, কিছু যাত্রি আহত হয়েছে। তবে বড় কোন দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছে বাসটি। আমরা দুর্ঘটনা সাথে সাথে দ্রুত গতিতে চলে এসেছি। আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। এখন পযন্ত কোন নিহত লোক আমরা পাইনি। তারপরে আমাদের উদ্ধার তাৎপরতা অব্যহত রেখেছি।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল মোর্শেদ কাছে ঘটনার বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি এ বিষয়ে এসপি সাহেব সাথে কথা বলার জন্য অনুরোধ করেন।

মাদারীপুর সহকারী পুলিশ সুপর (সার্কেল) মনিরুজ্জামান ফকির সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এ ঘটনায় কেউ নিহত হয়নি তবে একাধিক লোক আহত হয়েছে। ঘটনাটি শুনে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনা স্থানে গিয়ে উদ্ধার তাৎপরতা চালিয়েছে।