যত বিদ্যুতের উৎপাদন রেকর্ড ছাড়াচ্ছে তত লোডশেডিং বাড়ছে

dine-rate-load-sedding

সময়ের কণ্ঠস্বর –   রাতের শহরে জোনাক পোকার মতো জ্বলা এই বাতিগুলো বন্ধ হয়ে গেলো হঠাৎই। কারণ লোডশেডিং কেড়ে নিলো ওদের জ্বলবার ক্ষমতা। চলতি রমজানে ইফতার ও সেহরির সময় এ অবস্থা আরও দুর্বিষহ হয়েছে। তাই দুর্ভোগের সাথে আপস করেই চলছে নাগরিক জীবন।

রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় দিনে-রাতে কয়েকবার করে চলছে আধারের সাথে আলোর লুকোচুরি। শুধু বাসাবাড়িতেই নয় বিদ্যুৎ দিয়েই যাদের জীবিকা গত কয়েকদিনে তারাও পড়েছেন দুর্ভোগে।

চাহিদার কথা মাথায় রেখে গত কয়েক বছরে দেশে বিদ্যুতের উৎপাদন বেড়েছে কিন্তু সেই চাহিদা মেটাতে উন্নত হয়নি বিতরণ ব্যবস্থা। তাই উৎপাদিত বিদ্যুতের পুরো সুবিধা নিতে পারছে না গ্রাহকেরা। ফলে চলতি রমজানেও লোডশেডিং এর দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন দেশবাসী।

সংকটের কথা স্বীকার করে পিডিবির চেয়ারম্যান বলছেন, বিতরণ ব্যবস্থা উন্নত করার কাজ চলছে, সেটি সম্পন্ন হলে স্থায়ীভাবেই সমস্যার সমাধান হবে।

তবে বিতরণ লাইনের দুর্বলতার কারণে সংকটের কথা স্বীকার করে পিডিবির চেয়ারম্যান মো. শামসুল হাসান মিয়া বলেছেন, চলতি রমজানে বিদ্যুতের উৎপাদন রেকর্ড ছাড়িয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ঈদকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন শপিং মলে আলোকসজ্জার নামে যে হারে বিদ্যুতের অপচয় হয় সেটিও বন্ধ হওয়া উচিত। তাতে লোডশেডিং এর হারও কমবে।