ফরিদপুরে বিছা পোকার প্রকোপে বাড়ী ছাড়ছে এলাকাবাসী

১২:২৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুলাই ২৪, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের সদর উপজেলার কয়েকটি গ্রামে পাটের বিছা পোকার প্রকোপ দেখা গেছে। বাড়ী ঘরে পোকার ব্যাপকতার কারণে কেউ কেউ বাড়ী ছেড়ে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। আর ক্ষতি হচ্ছে পাটেরও।

faridpura-bisa

শহরতলী চরমাধবদিয়া, হাফেজডাঙ্গি, ঈষান গোপালপুর সহ আশেপাশের এলাকায় পাটের বিছাপোকায় সয়লাব হয়ে গেছে। পাটের পাতার রস খেয়ে এখন পোকরদল ঝাঁক বেঁধে স্থানীয় স্কুল, মাদ্রাসা সহ বাড়ী ঘরে প্রবেশ করছে। গাছপালা আর সবজীর পাতার রস খেতে সর্বত্র বিচরন করছে পোকা।

পোকার প্রকোপে ক্ষতিগ্রস্ত পাট চাষীরা। কোনভাবেই বিছাপোকা দমন করা যাচ্ছেনা বলে জানান তারা (পাটচাষীরা)। এতে পাটের উৎপাদনে প্রভাব পড়বে বলে মনে করেন তারা। পোকা সর্বত্র বিচরন করায় স্থানীয় স্কুল ও মাদ্রাসায় লেখাপড়াও বিঘ্নিত হচ্ছে বলে দাবী শিক্ষার্থীদের।

স্থানীয় কয়েকজন গৃহিনী জানান, বাড়ি বিছানা, খাবার পাত্রে, টিউবলের মধ্যে সহ সব স্থানেই বিছা আর বিছা বিচরণ করায় স্বাভাবিক জীবন যাপন ব্যহত হচ্ছে। অনেকে আবার বিছাপোকার অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে অন্যত্র আশ্রয় নিয়েছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রান চায় তারা।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, ফরিদপুর অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ কিংকর চন্দ্র দাস সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এই বিছা পোকা ডিম থেকে ফোটার সময় পাতার নিচে হাজার হাজার বাচ্চা পোকা জড়ো হয়ে থাকে ওই সময় পাতাগুলো সংগ্রহ করে ধ্বংস করে ফেললে পোকার আক্রমন কম হয়। এই মূহুর্তে কিছু করার নেই বলে দাবী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের। পাটের ফলন সঠিক রাখতে ও এলাকাবাসীকে পোকার অত্যাচার থেকে রক্ষায় বিছাপোকা দমনে ব্যবস্থা নেবে সরকার এমন প্রত্যাশা ভুক্তভোগীদের।