সংবাদ শিরোনাম
নরসিংদীতে প্রথমবারের মতো সর্বাধুনিক কার ওয়াশ ও সার্ভিসিং সেন্টার উদ্বোধন | রাজধানীতে ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে ‘ফইন্নি গ্রুপের’ ৬ সদস্য আটক | এবার চমেক চিকিৎসকদের জন্য ‘নোবেল’ চাইলেন মেয়র নাছির | তানোরে অবৈধ এসটিসি ব্যাংক সিলগালা | ফাঁড়িতে আসামির মৃত্যু: পুলিশ-এলাকাবাসীর সংঘর্ষে আহত ৩৩, পাঁচ পুলিশ প্রত্যাহার | লালমনিরহাটে সহকারী পরিচালকের বেত্রাঘাতে স্কুলছাত্রী অজ্ঞান | সাগরে মৎস আহরণে নিষেধাজ্ঞা, ফিশারিঘাট হারিয়েছে চিরাচরিত রুপ | ‘আবরার পানি খাইতে চাইলে পানি দেওয়া হয় নাই’ | নান্দাইলে নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যাগ রাখায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা | মাগরিবের আজানের ২০ মিনিটের মধ্যে ছাত্রীদের হলে ঢোকার নির্দেশ! |
  • আজ ২রা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রামেক ডাক্তার কতৃক শিক্ষানবিশ ১৪ নারী ইন্টান চিকিৎসক যৌন হয়রানির শিকার

১:৫৯ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, জুলাই ২৮, ২০১৬ অপরাধ, আলোচিত, দেশের খবর, রাজশাহী

ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী প্রতিনিধি-  শিক্ষানবিশ ১৪ জন নারী ইন্টান চিকিৎসককে তিনি যৌন হয়রানিসহ অপ্রতীতিকর আচরণের অভিযোগ উঠেছে চিকিৎক মোজাম্মেল হক বাদলের বিরুদ্ধে। somoyerkonthosor56রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের এক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সহকর্মী ইন্টার্ন চিকিৎসদের যৌন হয়রানিকারী অনারারি মেডিক্যাল অফিসার (এইচএমও) মোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ বিরাজমান। তদুপরি দাপটের সঙ্গে চিকিৎসার নামে অপকর্ম করে গেছেন রামেক হাসপাতালে ঐ বাদল।

গত বুধবার তাঁর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগে পর হাসপাতালের জরুরী সভা ডেকে তাৎক্ষণিক তাকে বদলি করা হয়। তবে এর আগে বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে চিকিৎসকদের মাঝে বিষয়টি তুলকালাম ঘটনা ঘটে। সর্বশেষে গতকাল বুধবার বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালের আট নম্বর ওয়ার্ডে দায়িত্বে থাকা একজন নারী ইন্টার্ন চিকিৎসককে ডা. বাদল যৌন হয়রানি করেন। তাৎক্ষণিক বিষয়টি ওই নারী ইর্ন্টান ওয়ার্ড ইন-র্চাজের কাছে মৌখিকভাবে অভিযোগ করেন। এরপর ওয়ার্ড ইনচার্জ বিষয়টি হাসপাতালের পরিচালককে জানান। তবে অভিযোগ করায় জানতে পেরে ডা. বাদল ওই নারী ইন্টার্নকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজও করেন।

বিষয়টি স্বীকার করে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল রফিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ‘যৌন হয়রানি অভিযোগ পাওয়ার পর ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের পরিচালনা পর্ষদ, সব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও অধ্যাপকদের নিয়ে জরুরী সভা করে দুপুরেই তাঁকে বদলীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।’ মোজাম্মেল হক বাদল রামেক হাসপাতালের নিউরো সার্জারী বিভাগের অনারারি মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় এই বিভাগে কোনো নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক দায়িত্ব পালনে গেলেই তাঁকে নানাভাবে যৌন হয়রানি করেন। এসময় আরও ১৩ জন ভুক্তভোগী নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক হাসপাতাল পরিচালকের কাছে গিয়ে বাদলের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মৌখিকভাবে অভিযোগ করেন।

এই অভিযুক্তের কারনে ডা. বাদলকে তাৎক্ষণিক বদলীর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এছাড়াও তাঁর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে গতকালই একটি চিঠি দেন পরিচালক রফিকুল ইসলাম। তবে আজ বৃহস্পতিবার ডা; বাদলকে বদলির আদেশের চিঠি স্বাস্থ্য অধিপ্তর থেকে আসতে পারে বলেও দাবি করেছেন রামেক হাসপাতালের একটি সূত্র।