সংবাদ শিরোনাম
ব্যস্ত সময় পার করছেন সাভার ও আশুলিয়ার প্রতিমা শিল্পীরা | অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী | পরকীয়া প্রেমিক নাতির পুরুষাঙ্গ কেটে দিলেন দাদি! | মাগুরায় যুবলীগ নেতার পিতার উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন | শিক্ষা দিবসে ইবি ছাত্র ইউনিয়নের র্যালি | আট দিনের আন্দোলনেও সুরাহা মেলে নি বাকৃবি শিক্ষার্থীদের | প্রকল্পের পণ্য কিনতে দাম নির্ধারণে সর্তক হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর | বাকৃবিতে জিটিআইয়ে কর্মকর্তাদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী | নেত্রী পদে থাকতে বলেন থাকব, না বললে থাকব না: কাদের | প্রত্যেক বিভাগীয় শহরে হবে পূর্ণাঙ্গ ক্যান্সার হাসপাতাল |
  • আজ ২রা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

গাইবান্ধায় সোনাইল বাঁধ ভেঙে নতুন করে ১০ গ্রাম প্লাবিত

৫:৪৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, জুলাই ৩১, ২০১৬ দেশের খবর, রংপুর

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা সদর উপজেলার সোনাইল বাঁধ ভেঙে ১০ গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। এতে নতুন করে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে ১০ সহস্রাধিক মানুষ। আজ রবিবার দুপুরে উপজেলার বাদিয়াখালি ইউনিয়নের চুনিয়াকান্দি এলাকায় ঘাঘট নদীর পানির চাপে বাঁধের ১০০ মিটার ভেঙে যায়।

gram-bonna

বাদিয়াখালি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সাফায়েতুল ইসলাম পাভেল সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এক সপ্তাহ ধরে ঘাঘট নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। এতে বাঁধটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় দুপুরে পানির চাপে বাঁধটি ভেঙে যায়। এতে নতুন করে ১০ হাজারের বেশী মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। এ ছাড়া আতঙ্কে রয়েছে আরও ১০ হাজার মানুষ। ফলে এলাকার বন্যা পরিস্থিতি আরো প্রকট আকার ধারণ করেছে।

তিনি অভিযোগ করেন, গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের গাফিলতির কারণেই বাঁধটি ভেঙে গেছে। এলাকাবাসী স্বেচ্ছাশ্রমে বালুর বস্তা ফেলে বাঁধটি রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে আসছিল বলেও জানান তিনি।

এর আগে গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নে রতনপুর বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের সিংড়িয়া পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র নদের পানির প্রবল চাপে বাঁধটি ভেঙে যায়। এতে অর্ধলক্ষাধিক মানুষ নতুন করে পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এ নিয়ে চলতি বন্যায় জেলার দুটি বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ধসে গেল।