ভারতে বন্যা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯১

৫:২৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, আগস্ট ৭, ২০১৬ Breaking News, আন্তর্জাতিক

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক – ভারতের বিহার রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি হয়েছে। এখন পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯১। খবর দ্যা হিন্দুর।

পূর্ণিয়া জেলা থেকে নতুন করে দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। বিহারের ১৪টি জেলা বন্যায় বিপর্যস্ত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া স্থানীয় প্রশাসনের তথ্য নিয়ে জানিয়েছে, ১৪টি জেলার ৭৮ টি ব্লক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন ৬৪২টি পঞ্চায়েতের প্রায় ৩৩ লাখ মানুষ।

বন্যায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর খবর এসেছে পূর্ণিয়া জেলা থেকে। ২৮ জন মারা গেছেন এই জেলায়।

floods-in-bihar-l

এছাড়াও আরারিয়া জেলায় নিহতের সংখ্যা ২১। কাটিহারে ১৫ ও সুপুয়ালে ৮ জন মারা গেছেন। কিষাণগঞ্জে নিহতের সংখ্যা ৫, মাধেপুরা ও গোপালগঞ্জে ৪ এবং দ্বারভাঙায় ৩ জন মারা গেছেন। সহর্ষা সারণ ও মুজাফ্ফরনগর জেলায় মারা গেছেন একজন করে।

নেপালে প্রবল বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এরফলে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় এখনও বিপদসীমার বেশ উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে গঙ্গা। খাগাড়িয়ার বালতারা ও কাটিহারের কুরসেলা এলাকায় কোশি নদীও প্রবাহিত হচ্ছে বিপদসীমার উপর দিয়ে।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রায় ২ লাখ হেক্টর কৃষিজমি।বন্যা কবলিত এলাকায় খোলা হয়েছে ৪৬৪টি ত্রাণশিবির। বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছেন প্রায় ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৪৯ জন। ২২৪টি মেডিক্যাল টিম উপদ্রুত এলাকায় কাজ করছে। এছাড়া স্থানীয় প্রশাসন বন্যাদুর্গতদের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র সরবরাহ করছে ।

বন্যা কবলিত এলাকায় উদ্ধার ও ত্রাণকাজ চালাচ্ছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী ও বিহারের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারও বন্যা মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় সাহায্য করবে বলে জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, বিহার রাজ্য আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ৭শ ৩৬ মিলিমিটার রেকর্ড করেছে। এই মৌসুমে যা ১০৭ দশমিক ৫ শতাংশ রেকর্ড করা হয়েছে। গত বছর এই সময় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৬২ শতাংশ।

ভারতে বিচ্ছিন্ন এলাকা উত্তর প্রদেশ, পাঞ্জাব, জাম্মু-কাশ্মীর, রাজস্থানের পূর্ব অংশ, মধ্য প্রদেশের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চল এবং গুজরাটে ভয়াবহ বৃষ্টিপাত হচ্ছে।