সংবাদ শিরোনাম
গাজীপুরে দীর্ঘ সময় মর্গে লাশ ফেলে রাখার অভিযোগে হামলা এবং ভাংচুর, আটক-৩ | দুর্দান্ত খেলেও ভারতকে হারাতে পারলো না বাংলাদেশ | বুয়েটে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার থেকে মুছে ফেলা হলো ছাত্রলীগের নাম | ভারতের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ | ‘বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকারীদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত’- কাদের | বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির সাবেক ৭ এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা | সাভার থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের এক সদস্য আটক | পাবনায় ছেলের পাথরের আঘাতে বাবার মৃত্যু | বশেমুরবিপ্রবি’র প্রভোষ্ট ও বিভিন্ন অনুষদের চেয়ারম্যানসহ ৭ জনের পদত্যাগ | অবৈধ স্থাপনা সরাতে সাবেক সাংসদ উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে নোটিশ |
  • আজ ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বিশ্বের ১৩ কোটি মানুষ ত্রাণের ওপর নির্ভরশীল

৩:২৫ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০১৬ আন্তর্জাতিক

news_picture_35824_bankimon1


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

বিশ্বের ১৩ কোটি মানুষ নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে ত্রাণ সহায়তার ওপর নির্ভরশীল। ১৯ আগস্ট বিশ্ব মানবতা দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘ মহাসচিক বান কি মুন এক বার্তায় এ তথ্য জানিয়েছেন।

জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে দেওয়া বান কি মুনের বার্তাটিতে বলা হয়েছে- ‘ ১৩ কোটি মানুষ বেঁচে থাকার জন্য মানবিক ত্রাণ সহায়তার ওপর নির্ভরশীল। এই পরিমাণ মানুষকে একত্র করলে বিশ্বের দশম জনবহুল রাষ্ট্র গঠন করা যাবে।’

মুন বলেন, ‘এই পরিসংখ্যান সত্যিই বিস্ময়কর, যদিও এটি একটি গল্পের ভগ্নাংশ মাত্র। এই পরিসংখ্যানের পেছনে লুকিয়ে আছে অনেক ব্যক্তি, পরিবার ও সম্প্রদায়, যাদের জীবন ধ্বংস হয়ে গেছে। প্রতিদিন অসম্ভব বিকল্পের মুখোমুখি হচ্ছে যেসব নারী, শিশু কিংবা পুরুষ- আপনার আমার কাছে তাদের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। শিশুর জন্য খাবার কিংবা ওষুধ কেনা, এই দুয়ের মধ্যে একটি মা-বাবাকে বেছে নিতে হচ্ছে; শিশুদেরকে স্কুল কিংবা পরিবারকে সাহায্য করার জন্য কাজ-যে কোন একটি বেছে নিতে হচ্ছে; পরিবারগুলোকে হয় বাড়িতে বোমা পড়ার ঝুঁকিতে থাকতে হচ্ছে না হয় সমুদ্রপথে বিপজ্জনকভাবে পালাতে হচ্ছে।’

জাতিসংঘ মহাসচিবের মতে, যে সংকট এই লোকগুলোকে প্রচণ্ড কষ্টের মধ্যে ফেলেছে তার সমাধান খুব সাধারণ নয়, আবার এর দ্রুত সমাধানও সম্ভব নয়। কিন্তু কিছু কাজ রয়েছে যেগুলো আমরা সবাই করতে পারি- আজ এবং প্রত্যেক দিন। আমরা সমবেদনা জানাতে পারি, অন্যায়ের বিরুদ্ধে উচ্চকন্ঠে প্রতিবাদ জানাতে পারি এবং পরিবর্তনের জন্য কাজ করতে পারি।

বিশ্ব মানবতা দিবসের কথা উল্লেখ করে বান কি মুন বলেন, ‘দিবসটি বছরে অন্তত একবার এসব মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের লক্ষ্যে কাজ করার কথা মনে করিয়ে দেয়। একইসঙ্গে সঙ্কটের সামনে অনবরত পরিশ্রম করে যাওয়া ত্রাণ কর্মী ও স্বেচ্ছাসেবকদের সম্মান করার জন্য এই দিবস একটি উপলক্ষ্যও বটে। যারা আরো বেশি ঝুঁকি নিয়ে বিপদকে তুচ্ছজ্ঞান করে অন্যদের সাহায্য করতে ঝাঁপিয়ে পড়েন, সেসব নিবেদিত নারী-পুরুষের প্রতি আমি শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।’