সংবাদ শিরোনাম
গাজীপুরে দীর্ঘ সময় মর্গে লাশ ফেলে রাখার অভিযোগে হামলা এবং ভাংচুর, আটক-৩ | দুর্দান্ত খেলেও ভারতকে হারাতে পারলো না বাংলাদেশ | বুয়েটে বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত ব্যানার থেকে মুছে ফেলা হলো ছাত্রলীগের নাম | ভারতের বিপক্ষে ১-০ গোলে এগিয়ে বাংলাদেশ | ‘বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকারীদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত’- কাদের | বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির সাবেক ৭ এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা | সাভার থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হরকাতুল জিহাদের এক সদস্য আটক | পাবনায় ছেলের পাথরের আঘাতে বাবার মৃত্যু | বশেমুরবিপ্রবি’র প্রভোষ্ট ও বিভিন্ন অনুষদের চেয়ারম্যানসহ ৭ জনের পদত্যাগ | অবৈধ স্থাপনা সরাতে সাবেক সাংসদ উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৪ জনকে নোটিশ |
  • আজ ১লা কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ভিক্ষুককে ভিক্ষা দিয়ে সমালোচকদের তোপের মুখে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

৫:১১ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, আগস্ট ১৯, ২০১৬ Breaking News, আন্তর্জাতিক, স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় এক ভিক্ষুককে পাঁচ পাউন্ড ভিক্ষা দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল। প্রধানমন্ত্রীর এমন কাণ্ডে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রীতিমতো সমালোচনার ঝড় বইছে।

গত বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ছবি পোস্ট করা হয়। সেখানে দেখা যায়, প্রধানমন্ত্রী ভিক্ষুকের সামনে থাকা কফি কাপে পাঁচ পাউন্ড গুঁজে দিচ্ছেন। এরপরই সমালোচকদের তোপের মুখে পড়েন তিনি। এ ঘটনার জন্য তারা তাকে ‘কুঞ্জুস’ আখ্যা দিয়েছে। তাদের ভাষ্য প্রধানমন্ত্রীর অপর হাতে যথেষ্ট অর্থ ছিল। এ ছাড়া ব্যক্তিগতভাবে টার্নবুল বেশ ধনী। তার মতো এমন ধনী ও ক্ষমতাধর একজনকে ভিক্ষুককে মাত্র পাঁচ পাউন্ড দেওয়া শোভা পায় না। সমালোচকদের কারো কারো মতে, প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরার সামনে নিজের মহত্ব প্রচার করার জন্যই এ কাজ করেছেন।

অপরদিকে সমালোচকদের আরেক দল বলছে, এভাবে ভিক্ষুককে অর্থ দেওয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী দারিদ্র্যকে সমর্থন জানিয়েছেন। মেলবোর্নের মেয়র রবার্ট ডয়লি বলেছেন, ভিক্ষুককে সহযোগিতার মাধ্যমে তাদের মাদক নেওয়ার অভ্যাস ও দারিদ্র্যকে সমর্থন করা হয়। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ভিক্ষা দেওয়ার পরিবর্তে দাতব্য সংস্থা খুলে বসার পরামর্শ দিয়েছেন।

Australian-Prime-Minister-gave-alms

শেষ পর্যন্ত শুক্রবার সমালোচকদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন টার্নবুল। ‘থ্রিএডব্লিউ’ নামে মেলবোর্নের একটি রেডিওকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘ আমি ওই লোকটির প্রতি দুঃখবোধ করছিলাম। মানবিক কারণে তাকে ভিক্ষা দিয়েছিলাম। আমার আচরণে কেউ কষ্ট পেয়ে থাকলে আমি ক্ষমাপ্রার্থী।’