সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জমে উঠেছে কোরবানির হাট; ভারতীয় গরুতে সয়লাব নোয়াখালীর গরু বাজার

৫:৪৫ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ২, ২০১৬ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

মোঃ ইমাম উদ্দীন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি:

কোরবানীর ঈদ যতোই ঘনিয়ে আসছে ততই ভারতীয় গরুতে সয়লাব হয়ে উঠছে নোয়াখালীর হাট, বাজার। ঈদকে সামনে রেখে ভারতীয় গরুর সারি দেখা গেছে। নোয়াখালীর শহর থেকে প্রত্যন্ত পল্লী পর্যন্ত। জেলার বিভিন্ন হাট, বাজার পরিদর্শনের সময় ভারতীয় গরুর তোড়ে চলাচলও কষ্টকর হয়ে পড়েছিল।

শুক্রবার বিকালে নোয়াখালী সদরের দত্তের হাট, ওদার হাট, খাসেরহাট, আক্তার মিয়ার হাট, ভাটিরটেক বাজার, করমুল্যাহ, নুরু পাটওয়ারীর হাট, খলিফার হাট, কবির হাট উপজেলার কালামুন্সি বাজার, কবিরহাট বাজার, দানা মিয়ার হাট, চরএলাহি বাজার, কোম্পানীগঞ্জের বামনী বাজার, চাপরাশির হাট, ভূইয়ার হাট, বসুরহাট, বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী চৌরাস্তা, বাংলাবাজার, কাজির হাট, রাজগঞ্জ বাজার, ছয়ানী বাজার, ছমির মুন্সি, সেনবাগের সেবার হাট, কানকির হাট, সোনাইমুড়ির আমিশাপাড়া বাজার, বিপুলাসা বাজার, বজরা, চাটখিলের পাল্লা বাজার, সোমপাড়া।

সুবর্ণচরের চরজব্বর ডিগ্রী কলেজ, হানিফ চেয়ারম্যান বাজার, চরবাটা, ভূইয়ার হাট, ছমির হাট। চাটখিল বাজারসহ জেলার বড় বড় বাজারগুলো ভারতীয় গরুতে সয়লাব দেখা গেছে।

korbani-eid
তবে ভারতীয় গরুর প্রতি সাধারণ ক্রেতাদের আকর্ষণ কম বলে অনেকে জানান। বাজারেও ভারতীয় গরু শুধুমাত্র হোটেল মালিক ছাড়া কোরবানদাতাদের কিনার আগ্রহ দেখা য়ায়নি। তারা দেশী গরুর দাম বেশি বা কম হোক সেদিকেই ঝুঁকে পড়ছেন।
বাজার ব্যবসায়ীরা জানান, কোরবান নিকটে এলে বুঝা যাবে ভারতীয় গরুর কদর কি! তারা বলেন, যারা নিজেদের পছন্দসই দেশী গরু মেলাতে পারবেনা তারা ভারতীয় গরু কিনবেন।
এদিকে, নোয়াখালীর হোটেল, রেঁস্তোরায় গরুর গোস্তের দাম বেশ হাঁকিয়ে নিলেও তুলনামূলকভাবে গরুর দাম এখনও সাধারণ ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে রয়েছে।

ভারতীয় গরু ব্যাপরী কামাল উদ্দিন, সোবান সর্দারসহ অনেকে বলেন, সরকারকে কর দিয়েই ভারতীয় সীমান্ত বাজার থেকে বৈধভাবে গরু আনার পথে অনেক জায়গায় চাঁদাবাজির শিকার হচ্ছি। তারা এ বিষয়ে সরকারের প্রয়োজনীয় সহায়তা কামনা করছেন।