সফল হতে সফলরা সকালেই যা করেন!

সকালের ব্যায়াম

ডাঃ মোঃ সাইফুল ইসলাম, লাইফস্টাইল কন্ট্রিবিউটার, সময়ের কণ্ঠস্বর। সফলতা এমনিতেই আসে না। এজন্য প্রয়োজন কঠোর পরিশ্রম ও সাধনা। সফল ব্যক্তিদের জীবনী পাঠ করলে জানা যায়, সফল হতে তারা কত শ্রম ও সাধনা করেছেন। সাধারণত সফল লোকেরা সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠেই কিছু জরুরী কাজ সম্পন্ন করে থাকেন। তারপর বাকি কাজে মনোনিবেশ করেন। আজকের সফল লোকেরা প্রতিদিনের সকাল কিভাবে শুরু করেন তা তুলে ধরছি।

খুব ভোরে ওঠে: সফলতার প্রথম ধাপ বা সিঁড়ি হচ্ছে খুব ভালভাবে ঘুমিয়ে সকাল সকাল ওঠা। সফল ব্যক্তিরা খুবই সকালে ওঠেন। প্রার্থনা সেড়ে নেন। অতঃপর নাস্তার টেবিলে যাওয়ার পূর্বেই পুরো দিনের রুটিন বা কর্মসূচী তৈরি করে ফেলেন।

ব্যায়াম: সুস্থ শরীর সফলতার গোপণ হাতিয়ার। সুস্থ ও রোগমুক্ত ব্যক্তি পরিশ্রম করতে পিছপা হয় না। সফল ব্যক্তিরা নিয়মিত সকালে উঠে হাঁটার কথা ভোলেন না। ব্যায়াম করলে শরীর সারাদিন কাজ করার সক্ষমতা অর্জন করে। অলসতা আসে না।

জরুরী কাজ দেখা: সফল লোকেরা ব্যায়ামের পর সবথেকে জরুরী কাজ কোনটি তা অবলোকন করে থাকেন। যদি রাতে কোন কাজ আংশিক সম্পন্ন করে থাকেন তবে তা সকালে সম্পন্ন করার জন্য লেগে যান। অতঃপর সারাদিনের কাজের বিশ্লেষণ করেন। বিশ্লেষণ থেকে সফল লোকেরা দেখেন আজকের দিনের সবথেকে জরুরী কাজ কোনটি এবং তা সবচেয়ে আগে সম্পন্ন করার চেষ্টা করেন।

পরিবারের সাথে সময়: পরিবারকে সময় না দিলে কিছু কিছু সমস্যা দিনদিন ক্ষুদ্র থেকে বৃহৎ হতে পারে। সফল ব্যক্তিরা দিনের শুরুর কিছুটা হলেও পরিবারকে দিয়ে থাকেন। এসময় পরিবারের সদস্যদের সাথে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় বিষয় আলাপ-আলোচনা করে থাকেন।

কার্যসূচী তৈরিকরণ: কার্যসূচী বা রুটিন ব্যতীত যেকোন কাজ ব্যর্থ হতে পারে। কার্যসূচীর মাধ্যমে শুধু কাজ সহজই হয় না পাশাপাশি সঠিক কার্যসূচীর মাধ্যমে সহজেই সফলতা অর্জন করা যায়। সফল ব্যক্তিরা কার্যসূচী তৈরি করে সেই অনুযায়ী কঠোর পরিশ্রম করে থাকেন।

যথা সময়ে নাস্তা: যদি আপনি সারাদিনই উদ্যোমী থাকতে চান তবে যথা সময়ে সকালের নাস্তা খুবই জরুরী। কিছু গবেষণায় জানা যায়, সকালের নাস্তা করা হলে মস্তিষ্ক পুরোদিন সক্রিয় থাকে। সফল ব্যক্তিরা সকালের নাস্তা করতে ভোলেন না।

যদি আপনি সফল হতে চান তবে সময়ের গুরুত্ব বুঝে চলবেন। সেইসাথে সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠে লক্ষ্য অর্জনের জন্য লেগে যাবেন। পাশাপাশি অবশ্যই স্বাস্থ্যসম্মত জীবনশৈলী মেনে চলবেন।