হাতিয়ায় যুবতীকে ধর্ষণ : মামলা করে বাড়ী ছাড়া অসহায় পরিবার

১২:০৯ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, নভেম্বর ৮, ২০১৬ চট্টগ্রাম, দেশের খবর

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি: হাতিয়ায় এক যুবতী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন, মামলা করে আসামিদের হুমকিতে বাড়ী ছাড়া। ঘটানাটি ঘটে নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার ৬নং চর কিং ইউনিয়নের ৩নং ওয়র্ডে।

dhorson

ঘটনা ও মামলা সুত্রে জানা যায়, উক্ত এলাকার দিনমজুর মেরাজ উদ্দিনের মেয়ে রিমা আক্তার (১৯) একই এলাকার মোঃ আলমের বখাটে পুত্র মোঃ বাবলু (২২) রিমা আক্তারকে দীর্ঘদিন থেকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছে এতে রিমা রাজি না হওয়ায় বাবলু ক্ষিপ্ত হয়ে গত ১৪ই সেপ্টেম্বর রবিবার ভিকটিমের বসত ঘরে একা পেয়ে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। ধর্ষিতার শোর চিৎকারে আশে-পাশের লোকজন রিমাকে উদ্ধার করে এবং বাবলুকে আটক করে।

সালিশি বৈঠকের মাধ্যমে বাবলু এবং রিমার বিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে বাবলুকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় তার পরিবার ও স্থানিয় প্রভাবশালিরা। ২ মাস পর রীমা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসক রীমা অন্তসত্বা হওয়ার বিষয়টি জানিয়ে দেন। রীমার অসহায় দিনমজুর পিতা মেহরাজ উদ্দিন মেয়ের বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে বাবলুর বাড়িতে গেলে বাবলু ও তার বড় ভাই ফারুক (২৫), দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ভিকটিমের পরিবারের উপর হামলা চালায়। এতে রীমা, তার মা ও বাবা গুরুতর আহত হয়। উপরোক্ত বিষয়ে হাতিয়া থানায় মামলা করতে গেলে মামলা নেয়নি হাতিয়া থানা পুলিশ।

নিরুপায় হয়ে ধর্ষিতা বাদী হয়ে নোয়াখালী জেলা জজ আদালতে বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ মামলা করেন, মামলা নং-১৪৪৬/১৬। উক্ত আসামীরা মামলার বিষয়টি জানতে পেরে বিভিন্ন মাধ্যমে হুমকি-ধুমকি দিচ্ছে। প্রাণ ভয়ে বর্তমানে অসহায় পরিবারটি বাড়ি ছেড়ে অন্যের বাড়িতে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। উক্ত বিষয়ে ন্যায় বিচার পেতে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভিকটিমের পরিবার।

Loading...